রবিবার | ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং |

কোভিড-১৯ রাশিয়ার ভ্যাক্সিন ‘স্পুতনিক ভি’

ডাঃ ইসমত কবীর, বর্তমানকন্ঠ ডটকম, যুক্তরাজ্য : রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন আজ কোভিড১৯ এর একটা ভ্যাক্সিন অনুমোদন দিয়েছেন।

এটি নতুন ধরণের টীকা, এরকম টীকা আগে কখনও ব্যবহৃত হয়নি। জৈবপ্রযুক্তির মাধ্যমে দুটি এডেনোভাইরাস (এডি৫ এবং এডি২৬)এর জিন এ রূপান্তর ঘটিয়ে তৈরি করা হয় এ টিকাটি, নাম ছিল Gam-Covid-Vac Lyo’. রুশ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন গামালিয়া রিসার্চ ইন্সটিটিউট এর তত্ত্ববধানে তৈরি এ টীকাটির নতুন নাম হয়েছে ‘স্পুতনিক ভি’।

দৃশ্যতঃ যথাযথ তৃতীয় পর্বের ট্রায়াল ছাড়া তড়িঘড়ি করে টিকাটির এ ছাড়পত্র দেওয়া হলো।

চীনের ক্যানসিনো বায়োলজিক্স এর ‘Ad5’ আর যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড/আস্ট্রাজেনেকার এর ‘AZD 1222’ একই প্রযুক্তির টীকা। দুটোরই চূড়ান্ত পর্বের ট্রায়াল চলছে।

ক্যানসিনোর টীকাটি ইতোমধ্যে চীন সেনাবাহিনীর সদস্যদের মধ্যে ব্যবহার এর অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট পুতিন এর দুই মেয়ের একজন মারিয়া ভরোন্তসোভা (৩৫) চিকিৎসা গবেষণায় সম্পৃক্ত। সম্ভবতঃ তিনি এ ট্রায়ালে স্বেচ্ছাসেবীর ভূমিকা নিয়েছেন। প্রথম ডোজ এর পরপরই তাঁর জ্বর হয়েছিল ৩৮ ডিগ্রি যা পরদিনই ৩৭ এ নেমে আসে। দ্বিতীয় ডোজের পরও আবার তাপমাত্রা সামান্য বেড়েছিলো। সবমিলিয়ে তিনি সুস্থ আছেন। তাঁর শরীরে পর্যাপ্ত পরিমাণ ভাইরাস নিষ্ক্রিয়কারী এন্টিবডি তৈরি হয়েছে বলে দাবী করা হয়।

দাবী করা হয়েছে, অন্তত দু’বছর এ টীকার কার্যকারিতা থাকবে। শিগগীরই টীকাটির তিনকোটি ডোজ উৎপাদিত হবে আর এ বছর অক্টোবর এর মধ্যে রাশিয়াতে গণহারে এ টীকা ব্যবহার শুরু হবে।

‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা’সহ বিভিন্ন দেশের বিজ্ঞানীরা এ টীকাটি তৃতীয় পর্বের ট্রায়াল এর আগেই অনুমোদন দেওয়ার যথার্থতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। চূড়ান্ত পর্বের এ ট্রায়াল নিয়ে আপস হলে টীকার কার্যকারিতা নিয়ে সংশয় থেকে যায়, নিরাপত্তা ও গুরুতর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে ঝুঁকি থেকে যায়।

উল্লেখ্য, এর আগে রাশিয়া ইবোলা ভাইরাসের টিকার শতভাগ সাফল্য দাবী করেও কার্যকারিতা প্রমাণ করতে পারেনি, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তালিকায় এটি এখনও ‘সম্ভাব্য টীকা’ হিসেবে চিহ্নিত।

এদিকে ‘গ্লোবাল ভ্যাক্সিন ট্র‍্যাকার’ এর সর্বশেষ তথ্য অনুসারে অন্তত সাতটি সম্ভাব্য টীকা চূড়ান্ত পর্বের ট্রায়ালে আছে।

লেখক : জেরিয়াট্রিক ও জেনারেল মেডিসিন বিশেষজ্ঞ রেজিস্ট্রার, কুইন এলিজাবেথ দা কুইন মাদার হসপিটাল, মারগেট, কেন্ট, যুক্তরাজ্য।

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *