সোমবার | ১৯শে অক্টোবর, ২০২০ ইং |

বোবা গণতন্ত্র

সৈয়দ মুন্তাছির রিমন, বর্তমানকন্ঠ ডটকম, ফ্রান্স : গণতন্ত্র না কি ষড়যন্ত্র? আমাদের দমনিতে শহীদের রক্ত। তাই প্রতিবাদ গুলো নৈতিক দায়িত্ব। তবে জয় বাংলা, জিন্দাবাদ কিংবা তকবির দিয়ে সুস্থ সমাজ গঠন করা যায় না। চৌরাস্তার মোড়ে কিংবা ফুটপাতে মাইক হাতে ক্যানভাচারের মতো ঔষধ বিক্রি করলে নেতা হওয়া যায় না। নেতা আদশ্যিক হতে হয়। আমাদের সমাজনীতি ও রাজনীতি কি শুধুই পকেট বাণিজ্যের জন্য নেশায় মাতাল হয়ে যাওয়া? একটু কি মা, মাটি আর বিবেকের কাছে দায়বদ্ধতা নেই? আমরা কি মুজিব আর জিয়ার শ্লোগানে মনুষ্যত্ব বিক্রি করে দিয়েছি?

কেন? এদেশে প্রতিদিন ধর্ষিত হয় স্বাধীনতা, লুন্ঠিত হয় গণতন্ত্র, মৃত্যদণ্ড হয় মানবতা আর পানির দামে বিক্রি হয় ধর্ম। কিন্তু রাজনীতির সমীকরণে এতোটা পচন ধরেছে রাজনীতি নামক শব্দটাই নিজে একটি গালিতে পরিণত হয়েছে। আজকাল জনগণ রাজনীতি মানে হাস্যরস বুঝে। যেনো একটি বাণিজ্যিক সার্টিফিকেট বা লাইসেন্স।

আমাদের বাঁচার স্বপ্ন গুলো দেশের সামাজিক, রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক কাঠামোতে হত্যা করা হয়। এদেশের সদ্য জন্ম নেওয়া ছোট্ট শিশু কিংবা মায়ের গর্ভের সন্তানের কোন নিরাপত্তা নেই। প্রতিদিন মায়ের গর্ভে খুন হয় শিশু। এই হিসেবটা কারও কাছে নেই। কেউ রাখার চেষ্টা করে না। সরকারের নেই পরিকল্পনা। আমলাতান্ত্রিক গোলকধাঁধায় বাকশক্তিহীন হয়ে পড়ে স্মৃতিসৌধ। রাজপথে দিনে কুকুর আর রাতে শিয়ালেরা আসন জমায়। গণতন্ত্র আর মানবতার ছায়া পড়ে না। জেলখানার দেয়াল গুলো ইটে নয় মানুষের শরীর দিয়ে মেরামত করা হয়। বুড়িগঙ্গায় পানি নয়, রক্তও নয় লাশের সারিতে ঢেউ খেলে তোমার আমার কষ্টে অর্জিত অর্থনীতি।

আমরা মুক্তি নয় শান্তি চাই, বেচেঁ থাকার অধিকার চাই, স্বপ্ন দেখে বাঁচতে চাই। কিন্ত স্বপ্ন নিয়ে সাগরে মরতে নয়, দেশের মাটিতে স্বাভাবিক ভাবে বেঁচে থাকার অধিকার চাই। বিচারহীনতা, অগণতান্ত্রিক রাজনীতি, প্রশাসনিক তাণ্ডব লীলা, অবৈধ বাণিজ্যের মহড়া ও দূর্নীতির করাল ঘ্রাসে ক্ষত-বিক্ষত লাল-সবুজ পতাকার পবিত্রতা চাই। যে পবিত্রতা নিয়ে ধর্ষণ থেকে বাঁচতে লঞ্চ থেকে কিশোরী নদীতে ঝাপ দিবে না।
কিশোরীটি প্রায় ৩ ঘণ্টা নদীতে ভাসার পর জেলেদের সহায়তায় ফিরে পায় নতুন জীবন। পরিবার কিংবা নিজের জীবন জীবিকার তাগিদে ১৬ বছর বয়সী কিশোরী কাজের সন্ধানে কর্ণফুলী-১৩ লঞ্চের যাত্রী হয়ে ঢাকায় যাওয়ার পথে ৪ জুলাই শনিবার সন্ধ্যায় তজমুদ্দিনের ভুঁইয়া গ্রাম সংলগ্ন মেঘনা নদীতে পবিত্রতা রক্ষার জন্য পানিকে নিরাপদ মনে করে। কিন্ত এদেশের সরকারের স্তম্ভ গুলো কি নিরাপদ বলয় তৈরি করেছে? যেখানে প্রতিদিন ধর্ষিত বোনের আর্তনাদে সংবিধানের অক্ষর গুলো ঝরে পড়ে।

লেখকঃ সাংবাদিক ও কলামিস্ট-প্যারিস-ফ্রান্স।

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *