| ২১শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং | ৭ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী | মঙ্গলবার ‘সহায়ক সরকারের অধীনে আওয়ামী লীগ বিজয়ী হলেও গ্রহণ করব’ – Bartaman Kanho

Bartaman Kanho

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম

‘সহায়ক সরকারের অধীনে আওয়ামী লীগ বিজয়ী হলেও গ্রহণ করব’

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, বিএনপির সমাবেশে সরকার সকল ধরনের যানবাহন বন্ধ করে দিয়ে সরকার নিজেরাই আক্রোশের পরিচয় দিয়েছে। তবুও জনগণ পায়ে হেঁটে জনসভায় অংশগ্রহণ করেছেন। এটা ঐতিহাসিক জনসভা হয়েছে।

তিনি বলেন, নিরপেক্ষ সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন, সেই নির্বাচনে যদি আওয়ামী লীগও বিজয়ী হয়, আমরা তাদের গ্রহণ করব। কিন্তু তারা জানে তাদের কোনো সম্ভাবনা নেই। এ জন্য তারা দলীয় সরকারের অধীনেই নির্বাচন করতে চায়। কিন্তু বিএনপি চায় আলোচনার মাধ্যমে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম ৭১ আয়োজিত ‘জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস, জিয়াউর রহমানের ভূমিকা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সংগঠনের সভাপতি আমিনুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, জাতীয় পার্টি (জাফর) প্রেসিডিয়াম সদস্য আহসান হাবিব লিঙ্কন, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. আব্দুস সালাম আজাদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার প্রমুখ।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, আমরা দেখলাম, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন শেখ হাসিনার ওপর নাকি খালেদা জিয়ার অন্ধ আক্রোশ। রাজনৈতিক বক্তব্যকে রাজনৈতিকভাবে নিতে হয়। শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে খালেদা জিয়া ব্যক্তিগত কোনো অভিযোগ করেননি। খালেদা জিয়া বলেছেন, শেখ হাসিনা বা তাঁর সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনে বাংলাদেশের জনগণ যাবে না। এটা রাজনৈতিক বক্তব্য, এখানে আক্রোশের কোনো ব্যাপার নেই। খালেদা জিয়া দু’টি চ্যালেঞ্জ করেছেন- কোনো বাধা না দিয়ে আপনারাও জনসভা করেন, দেখেন কোন জনসভায় বেশি মানুষ আসে।

অভিযোগ করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, বিএনপির জনসভাকে ব্যর্থ করার জন্য সড়ক পরিবহন, নৌপরিবহন বাধাগ্রস্ত করা হয়েছে। ঢাকার আশপাশের কোনো জেলা থেকে কোনো বাস আসতে দেওয়া হয়নি। তারপরেও সরকারের আচরণে ক্ষুব্ধ, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি এবং গুম, খুন, নানা ধরনের নিপীড়নে-নির্যাতনে অতিষ্ঠ জনগণ হেঁটে কষ্ট করে জনসভায় এসেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *