আগামী সপ্তাহেই প্রজ্ঞাপন: অতিরিক্ত সচিব হচ্ছেন দেড়শ’ কর্মকর্তা

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম,শুক্রবার,২৪ নভেম্বর ২০১৭: যুগ্ম সচিব থেকে অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতির জট খুলেছে। পদোন্নতির জন্য সুপারিশ প্রণয়নকারী কর্তৃপক্ষ সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ডের (এসএসবি) আগের তালিকা থেকে কমবেশি ১৮ জনের নাম বাদ দিয়ে নতুন করে দেড়শ’ জনের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনসাপেক্ষে আগামী সপ্তাহেই এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হতে পারে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে এসব তথ্য।

আরও জানা গেছে, নিয়মিত হিসেবে নবম ব্যাচের কর্মকর্তাদের পদোন্নতি দেয়া হলেও তালিকায় তাদের সংখ্যা খুবই নগণ্য। অন্যদিকে যোগ্যতা অর্জনের পরও এ দফায় আমলে নেয়া হয়নি ১০ম ব্যাচের কর্মকর্তাদের। অথচ প্রশাসন ছাড়া অন্যান্য ক্যাডারের এমন কিছু কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দেয়া হচ্ছে, যারা ১০ম ব্যাচের কর্মকর্তাদের পরে উপসচিব পদে পদোন্নতি পেয়েছিলেন। এ নিয়ে সংশ্লিষ্টদের মধ্যে চলছে চাপা ক্ষোভ ও অসন্তোষ।

জানা গেছে, চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহেই অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতিযোগ্য ১৭০ থেকে ১৭৫ জনের তালিকা চূড়ান্ত করে এসএসবি। এখানে নিয়মিত ব্যাচ হিসেবে ৯ম ব্যাচের কমবেশি ৩৫ কর্মকর্তার এ তালিকায় স্থান পায় বলে একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়। এ ছাড়া লেফটআউট হিসেবে ওই তালিকায় স্থান পায় বিসিএস ১৯৮২ (বিশেষ), ৮৪, ৮৫ ও ৮৬ ব্যাচের কিছু কর্মকর্তা। তারও আগে অক্টোবরের প্রথমদিকে নবম ব্যাচের সঙ্গে ১০ম ব্যাচের কর্মকর্তাদের পদোন্নতি দিতে এসএসবিকে পরামর্শ দিয়েছিলেন জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। কিন্তু তা উপেক্ষা করায় এক ধরনের জটিলতার সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে তালিকায় অনুমোদন না দিয়ে ফেরত পাঠান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী। পরে ওই তালিকা থেকে কমবেশি ১৮ জনের নাম বাদ দিয়ে দেড়শ’ কর্মকর্তার তালিকা চূড়ান্ত করা হয়।

ওই তালিকা নিয়ে বুধবার বিকালে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর দফতরে যান এসএসবির সভাপতি মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম, সদস্য সচিব জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মো. মোজাম্মেল হক খান, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (এপিডি) শেখ ইউসুফ হারুনসহ সংশ্লিষ্টরা। এ তালিকা অনুমোদন দেয়া হয় বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

এ প্রসঙ্গে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (এপিডি) শেখ ইউসুফ হারুন বৃহস্পতিবার বলেন, অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতির কাজ চলমান রয়েছে। আগামী সপ্তাহে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি হতে পারে। কমবেশি দেড়শ’ কর্মকর্তাকে এ দফায় পদোন্নতি দেয়া হতে পারে বলেও ইঙ্গিত দেন ইউসুফ হারুন।

পদোন্নতি বিলম্বিত হওয়ায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের মধ্যে এক ধরনের ক্ষোভ-হতাশা দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে এর আগে পদোন্নতিবঞ্চিত সিনিয়র ব্যাচের কর্মকর্তাদের দুশ্চিন্তার শেষ নেই। তারা বলছেন, যদি এসএসবি তাদের যোগ্য মনে করে থাকে তাহলে পদোন্নতি যত বিলম্বিত করা হবে তত তাদের প্রাপ্য হক থেকে বঞ্চিত করা হবে। অনেকে অবসরে যাওয়ার পথে। যারা একসময় সচিব হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন। এখন তারা অতিরিক্ত সচিবও হতে পারছেন না।

পদোন্নতিতে বিবেচনা না করায় ক্ষোভ ও হতাশার সৃষ্টি হয়েছে ১০ম ব্যাচের কর্মকর্তাদের মধ্যে। ব্যাচের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মকর্তা যুগান্তরকে বলেন, অতিরিক্ত সচিব হওয়ার সব যোগ্যতা অর্জনের পরও তাদের পদোন্নতির তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। অথচ তাদের পরে উপসচিব হয়েছেন অন্য ক্যাডারের এমন কিছু কর্মকর্তাকেও পদোন্নতি দেয়া হচ্ছে। পদ ছাড়াই যেহেতু পদোন্নতি দেয়া হচ্ছে তাহলে তাদের ব্যাচ আমলে নিতে সমস্যা কোথায়? নবম ব্যাচের সঙ্গে তারাও যুগ্ম সচিব হয়েছেন বলে জানান এ কর্মকর্তা।

bknews2010

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *