অধিনায়ক হিসেবে কোহলির বিশ্ব রেকর্ড

ক্রীড়া ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম,রবিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০১৭: অধিনায়ক হিসেবে দিল্লি টেস্টে শ্রীলংকার বিপক্ষে নিজের ক্যারিয়ারে ষষ্ঠ ডাবল-সেঞ্চুরির স্বাদ পেয়েছেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। এই ইনিংস দিয়েই অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে বেশি ডাবল-সেঞ্চুরির করে বিশ্ব রেকর্ড গড়েছেন তিনি। ভারত দলপতির এমন অর্জনের দিন ৭ উইকেটে ৫৩৬ রান তুলে নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে ভারত। জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে ৩ উইকেটে ১৩১ রান তুলেছে শ্রীলংকা। ৭ উইকেট হাতে নিয়ে ৪০৫ রানে পিছিয়ে লংকানরা।
ওপেনার মুরালি বিজয়ের ১৫৫ ও কোহলির অপরাজিত ১৫৬ রানের সুবাদে প্রথম দিন শেষে ৪ উইকেটে ৩৭১ রান করেছিলো ভারত। দ্বিতীয় দিন নিজের ২৩৮তম বলে টেস্ট ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ ডাবল-সেঞ্চুরি তুলে নেন কোহলি। অধিনায়ক হিসেবেই সবগুলো ডাবল-সেঞ্চুরি গেল ১৭ মাসে করেছেন তিনি। ফলে অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে বেশি ডাবল-সেঞ্চুরিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্রায়ান লারাকে পেছনে ফেলে নতুন বিশ্ব রেকর্ড গড়েন কোহলি।
ডাবল-সেঞ্চুরি করেও নিজের ইনিংস বড় করছিলেন কোহলি। এর মাঝে ৬৫ রান তুলে ফিরে যান রোহিত শর্মা। তার ইনিংসে ৭টি চার ও ২টি ছক্কা ছিলো। সেসময় ভারতের দলীয় রান ছিলো ৫ উইকেটে ৫০০।
দলীয় ৫২৩ রানে কোহলির ফিরে যাবার কিছুক্ষণ পরই ইনিংস ঘোষণা করে ভারত। ২৫টি চারে ২৮৭ বলে ক্যারিয়ার সেরা ২৪৩ রান করেন কোহলি। শ্রীলংকার পক্ষে লক্ষন সান্দাকান ১৬৭ রানে ৪ উইকেট নেন।
চা-বিরতির কিছুক্ষণ আগে ভারতের ইনিংস শেষ হবার পর ব্যাট হাতে নামে শ্রীলংকা। ইনিংসের প্রথম বলেই লংকান ওপেনার দিমুথ করুনারত্নকে শূন্য হাতে ফিরিয়ে দেন ভারতের পেসার মোহাম্মদ সামি। এরপর উইকেটে গিয়ে ১৪ বলের বেশি টিকতে পারেননি তিন নম্বরে নামা ধনানঞ্জয়া ডি সিলভাও। ভারতের আরেক পেসার ইশান্ত শর্মার শিকার হবার আগে মাত্র ১ রান করেন সিলভা। ফলে ১৪ রানেই দ্বিতীয় উইকেট হারিয়ে বসে শ্রীলংকা।
তৃতীয় উইকেটে পরিস্থিতি সামাল দিয়ে শ্রীলংকাকে খেলায় ফেরানোর চেষ্টা করেন দিলরুয়ান পেরেরা ও সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ। দু’জনে ৬১ রান যোগ করে বিচ্ছিন্ন হন। ৪২ রান করা পেরেরাকে শিকার করে ভারতকে তৃতীয় সাফল্য এনে দেন বাঁ-হাতি স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজা।
এরপর অধিনায়ক দীনেশ চান্ডিমালকে নিয়ে দিনের বাকী সময় শেষ করেন ম্যাথুজ। চান্ডিমাল ২৫ ও ম্যাথুজ ৫৭ রানে অপরাজিত আছেন। ভারতের সামি-ইশান্ত ও জাদেজা ১টি করে উইকেট নেন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর :
ভারত : ৫৩৬/৭ডি, ১২৭.৫ ওভার (কোহলি ২৪৩, বিজয় ১৫৫, সান্দাকান ৪/১৬৭)।
শ্রীলংকা : ১৩১/৩, ৪৪.৩ ওভার (ম্যাথুজ ৫৭*, পেরেরা ৪২, জাদেজা ১/২৪)।

Be the first to comment on "অধিনায়ক হিসেবে কোহলির বিশ্ব রেকর্ড"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*