যশোরে দুটি অর্থনৈতিক জোন হচ্ছে

ডেস্ক রিপোর্ট,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম,মঙ্গলবার, ৫ ডিসেম্বর ২০১৭: সীমান্তবর্তী যশোর জেলায় দুটি অর্থনৈতিক জোন হচ্ছে। সদর উপজেলায় আরবপুরে ৫শ’ একর এবং ঝিকরগাছায় ৪শ’ একর জমির ওপর এই জোন করা হবে। চলতি মাসেই এ সংক্রান্ত ফাইল প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাবে। আর আগামী দুই বছরের মধ্যে কাজ শুরু করা হবে। সোমবার বিকালে যশোর সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে এসব তথ্য জানান বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চেীধুরী।

মতবিনিময়ে তিনি জানান, সরকার সারাদেশে একশ’টি অর্থনৈতিক জোন স্থাপনের কাজ হাতে নিয়েছে। যার মধ্যে ২৩টির কাজ শুরু হয়েছে। বাকিগুলোর কাজও দ্রুতগতিতে শুরু করা হবে। যার মধ্যে যশোরে দু’টি থাকবে। কেননা, যশোর অনেক গুরুত্বপূর্ণ জেলা। এখানে রয়েছে দেশের সর্ববৃহৎ স্থলবন্দর বেনাপোল। আছে বিমানবন্দর, নওয়াপাড়া নৌবন্দর। পাশ আছে মংলা বন্দর ও ভোমরা স্থলবন্দর। যশোর থেকে সড়ক যোগাযোগ রয়েছে সব জেলার সাথে। যে কারণে এ জেলায় অর্থনৈতিক জোন হলে সবাই উপকৃত হবে। একই সাথে এ অঞ্চলের মানুষের কর্মসংস্থান বাড়বে।

তিনি বলেন, জমি অধিগ্রহণের সময় জমিদাতাকে ৩ গুণ মূল্য দেয়া হবে। একই সাথে তিনি কর্মসংস্থানেও অগ্রধিকার পাবেন। যশোরের অর্থনৈতিক জোনে শিল্প পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস থাকবে। নেয়া হবে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এখানে অটোমোবাইল কারখানাসহ মালটি-প্রোডাক্ট পণ্য উৎপাদন হবে। মাত্র তিন বছরে আমরা দেশে ৫টি অর্থনৈতিক জোন স্থাপন করেছি। যেখানে এক দশমিক ৩ বিলিয়ন ডলারের শিল্প স্থাপন হয়েছে। বর্তমানে বেজার দখলে তিন লাখ কোটি টাকার জমি রয়েছে। ব্যাংক ডিপোজিট রয়েছে কয়েকশ’ কোটি টাকা।

পবন চৌধুরী বলেন, শিল্পায়ন ও প্রযুক্তি ছাড়া দেশ উন্নত হবে না। উন্নত দেশের সাথে তাল মেলাতে এই দু’টির এক সাথে এগোতে হবে।

মতবিনিময়কালে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. আশরাফ উদ্দিন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মাজেদুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. মামুনুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হুসাইন শওকত, সহকারী কমিশনার (ভূমি) জাকির হাসান প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *