Sat. Oct 19th, 2019

Bartaman Kanho

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম

ধূমপানের ক্ষতি কমাবে ৫ খাবার

লাইফস্টাইল ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম,বুধবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৭: ধূমপান কতটা ভয়ঙ্কর তা ধুমপায়ীরাও জানে, তবও ধূমপান ছাড়তে অনীহা তাদের। ধূমপায়ীর মারাত্মক হৃদরোগ হবার সম্ভবনা দ্বিগুণ, ফুসফুসে ক্যান্সার হবার সম্ভাবনা দশগুণ, মুখ, খাদ্যনালী, অগ্ন্যাশয়, কিডনি, মূত্রাশয় ও জরায়ূ ক্যান্সারের সম্ভাবনা আছে।

কিন্তু একটু সচেতন হলেই ধুমপান আর বায়ু দূষণের এই ক্ষতি কাটিয়ে উঠা যায়। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, বায়ুদূষণের ক্ষতিকর প্রভাব ঠেকাতে নিয়মিত কিছু স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া প্রয়োজন। চলুন দেখে নেয়া যাক ধূমপানের ক্ষতি কমাবে যে সব খাবার-

১. টমেটো
শরীরকে রোগ প্রতিরোধক্ষম করে তোলে টমেটো। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় টমেটোর এসব কার্যক্ষমতার কথা বলা হয়েছে। গবেষকেরা বলছেন, টমেটোতে আছে দারুণ অ্যান্টিঅক্সিডেটিভ প্রভার, যা কোষকে বুড়ো হতে দেয় না। এ ছাড়া নানা রকম ক্যানসার প্রতিরোধ করতে পারে টমেটো। টমেটোর লাইকোপেন শ্বাসযন্ত্রে সুরক্ষা–স্তর হিসেবে কাজ করে।

২. কলা
সবগুণে গুণান্বিত কলা। বলা হয়ে থাকে কেউ যদি দিনে ৫ টি সিগারেট খান তারপরেই একটি কলা খান। তার কারণ হল সিগারেট খাওয়ারপর যে ক্ষতি হয় আমাদের ফুসফুসের ১ টি কলাতেই তার সমাধান পাওয়া যায়।

৩. গুড়
অ্যাজমা ও ব্রংকাইটিসের মতো অনেক শ্বাসযন্ত্রের সমস্যায় কার্যকর হতে পারে গুড়। তিলের সঙ্গে গুড় মিশিয়ে খেলে ইতিবাচক ফল পাওয়া যায়। ফুসফুসের যেকোনো ধরনের প্রদাহে কার্যকর ভূমিকা রাখে গুড়।

৪. হলুদ
হলুদ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে পরিচিত। দূষিত কণার প্রভাব থেকে ফুসফুসকে সুরক্ষা দিতে কাজ করে এই অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। কফ ও অ্যাজমার সমস্যা সমাধানে হলুদ ও ঘিয়ের মিশ্রণ কাজে লাগে। এ ছাড়া হলুদ, গুড় ও মাখনের মিশ্রণ অ্যাজমা দূর করতে পারে।

৫. আমলকি
গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত আমলকি খেলে ফুসফুসের ধূলি ও ধোঁয়া জনিত সব ক্ষতি ঠেকানো যায়। আমলকিতে থাকা ভিটামিন সি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, সর্দি-কাশি ঠেকাতে পারে। আয়ুর্বেদ শাস্ত্রেও আমলকির জুসের গুণ বর্ণনা করে বলা হয়েছে, শরীরের সব ধরনের ক্রিয়ার মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা করতে পারে তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *