এ বছরেই প্রতিটি ইউনিয়ন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের আওতায় আনা হেব-মোস্তাফা জব্বার

খন্দকার শাহিন,বুধবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮: ডাক,টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি বাস্তবায়নের ফলে বাংলাদেশ তথ্যযোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে নেতৃত্বের জায়গায় পৌছেছে। বাংলাদেশের সফটওয়্যার আয়ারল্যান্ড পুলিশ বিভাগসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ব্যবহার করছে। বাংলাদেশের সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়াররা দেশে বসেই জাপানের একহাজার ফ্লাটবাড়ীর নিরাপত্তা দিচ্ছেন। ফেব্রুয়ারিতেই নেপাল ও নাইজেরিয়ায় বাংলাদেশ কম্পিউটার রপ্তানী করতে যাচ্ছে। দেশব্যাপী ইন্টারনেট সুপার হাইওয়ে তৈরি করার আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি জানান ২০১৮ সালের মধ্যে দেশের প্রতিটি ইউনিয়ন অপটিক্যাল ফাইভার ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগের আওতায় আসবে। বিশ্ববিদ্যালয়, মার্কেটসহ জনবহুল স্থানে ওয়াইফাই নিশ্চিত করা হবে।

মন্ত্রী বুধবার রাজধানীর এ্যালিফ্যান্ট রোডে মাল্টিপ্লাস প্লাজায় কম্পিউটার সিটি সেন্টারে তথ্যপ্রযুক্তি প্রদর্শনী ডিজিটাল আইসিটি মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক এর উপাচার্য অধ্যপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী, বৃহত্তর এলিফ্যান্ট রোড দোকান মালিক সমিতির প্রধান উপদেষ্টা মোস্তফা মহসীন মন্টু, এফবিসিসিআই সভাপতি মো: শফিউল ইসলাম (মহিউদ্দিন), মো: হেলাল উদ্দিন, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি সভাপতি আলী আশফাক এবং ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার ২০১৮ এর আহ্বায়ক তৌফিক এহেসান বক্তৃতা করেন।

জনাব মোস্তাফা জব্বার বলেন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশে তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন সূি চত হয়েছে।আমরা কম্পিউটার আমদানী কারক দেশ থেকে এখন রপ্তানীকারক দেশে পরিণত হয়েছি। তথ্যপ্রযুক্তি থেকে বাংলাদেশ আটশত মিলিয়ন ডলার আয় করছে। দেশে এখন প্রায় সাড়ে আটকোটি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। ব্রডব্যান্ডের মূল্য প্রতি জিবিপিএস সাতাইশ হাাজার টাকা থেকে কমিয়ে প্রায় তিনশত টাকায় নির্ধারণ করা হয়েছে। ইন্টারনেট এখন নতুন প্রজন্মের শক্তি । ইন্টারনেট সম্প্রসারণের পাশাপাশি ইন্টারনেট নিরাপত্তা নিয়েও আমরা কাজ করছি। নিরপদ ইন্টারনেট নিশ্চিত করতেও আমরা সক্ষম হবো। দেশে ফেইসবুক ব্যবস্থাপনার নিজস্ব কোন প্রযুক্তি নেই । আমরা এবছরের মাঝামাঝি তা অর্জনে সক্ষম হবো । পরে মন্ত্রী ডিজিটাল আইসিটি মেলার উদ্বোধন করেন এবং মেলায় বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন ।

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম

http://www.bartamankantho.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *