রূপা ধর্ষণ ও হত্যায় ৪ জনের ফাঁসি

টাঙ্গাইল,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম,সোমবার,১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ : টাঙ্গাইলের মধুপুরে চলন্ত বাসে কলেজছাত্রী জাকিয়া সুলতানা রূপাকে গণধর্ষণ ও হত্যা মামলায় ৪ জনের ফাঁসি ও একজনের ৭ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের ভারপ্রাপ্ত বিচারক এবং অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক আবুল মনসুর মিয়া এই চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার রায় প্রদান করেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- ময়মনসিংহ-বগুড়া সড়কের ছোঁয়া পরিবহনের হেলপার শামীম, আকরাম ও জাহাঙ্গীর আলম এবং চালক মো. হাবিব মিয়া। অপর এক আসামি বাসের সুপারভাইজার সফর আলীকে ৭ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। এদের সবার বাড়ি ময়মনসিংহ জেলায়।

মামলার আসামিরা প্রত্যেকেই এখন টাঙ্গাইল কারাগারে রয়েছেন। ঘটনার ৬ মাসেই এ মামলার রায় প্রদান করা হলো।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, গত ছরের ২৫ আগস্ট বগুড়া থেকে ময়মনসিংহ যাওয়ার পথে কলেজ ছাত্রী রুপাকে চলন্ত বাসে গণধর্ষণ করে পরিবহন শ্রমিকরা। বাসেই তাকে হত্যার পর মধুপুর উপজেলায় পঁচিশ মাইল এলাকায় বনের মধ্যে রূপার মরদেহ ফেলে রেখে যায়।

পরে এলাকাবাসীর কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ ওই রাতেই অজ্ঞাত পরিচয় মহিলা হিসেবে তার মরদেহ উদ্ধার করে। পরদিন ময়নাতদন্ত শেষে রূপার মরদেহ বেওয়ারিশ হিসেবে টাঙ্গাইল কেন্দ্রীয় গোরস্থানে দাফন করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মধুপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে।

পত্রিকায় প্রকাশিত ছবি দেখে নিহতের ভাই হাফিজুর রহমান মধুপুর থানায় গিয়ে ছবির ভিত্তিতে তাকে শনাক্ত করেন। ২৮ আগস্ট এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে আসামিদের গ্রেফতার করে পুলিশ।

bknews2010

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *