যে কারণে সুপারশি আইল্যান্ডে পুরুষ প্রবেশ নিষেধ

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম, রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৮: এই আইল্যান্ডে সব পাবেন, কিন্তু কোনো পুরুষ পাবেন না। আক্ষরিক অর্থেই, ‘নো ম্যান’স ল্যান্ড’। আর এই ‘নো ম্যান’স ল্যান্ড’-এর ঠিকানা হল ফিনল্যান্ড। এটা আসলে একটা দ্বীপ। যার পুরোটাই নারীদের। আপনি যদি পুরুষ হন তাহলে এই দ্বীপে আপনার প্রবেশ নিষেধ। কারণ শুধু নারীরাই এই দ্বীপে যেতে পারেন।

ক্রিস্টিনা রথ নামে এক নারী এই দ্বীপের মালিক। শুধু নারীদের ছুটি কাটানোর জন্যই তিনি এই দ্বীপটিকে সাজিয়ে তুলেছেন। ক্রিস্টিনা একজন বিজনেস কনসালট্যান্ট।

পুরুষ প্রবেশ নিষেধের বিষয়ে রথ জানিয়েছেন, ক্যালিফোর্নিয়ার কালাবাসাসে ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে তিনি লক্ষ্য করেন, হ্যান্ডসাম পুরুষদের দেখে নারীরা নিজেদের অত্যধিক সাজিয়ে রাখছিলেন। প্রকৃতির সৌন্দর্যে সেখানে মাতোয়ারা হওয়ার কথা। অথচ তা না হয়ে আকর্ষণীয় হতে উঠতে নিজেকে সাজিয়ে রাখছেন। নিজের মতো থাকো, নিজের মতো বাঁচো, নিজের উপর ফোকাস করো— তখন ঠিক এটাই মাথায় আসে ক্রিস্টিনার। পুরুষদের উপস্থিতি যাতে এর অন্তরায় না হয়, তার জন্য নিজের এই দ্বীপ থেকে পুরুষদেরই বাদ দিয়ে দিয়েছেন তিনি।

চলতি বছরের জুন মাস থেকেই চালু হয়ে যাবে এই সুপারসি আইল্যান্ড। এখানে আসতে ইচ্ছুক পর্যটকদের অনলাইনে আবেদন করতে হবে। স্কাইপে আবেদনকারীর সঙ্গে সরাসরি কথা বলবেন স্ক্রিস্টিনাও। পর্যটকদের একটা ছোটখাটো ইন্টারভিউ নেবেন তিনি।পর্যটকদের সুরক্ষার কথা ভেবেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন তিনি।

প্রকৃতির মধ্যে নারীদের ছুটি কাটানোর সমস্ত আয়োজন তিনি করেছেন এখানে। পাশাপাশি নারীরা এখানে রান্নাও শিখে নিতে পারেন। এই দ্বীপের নাম দিয়েছেন সুপারশি আইল্যান্ড।

Be the first to comment on "যে কারণে সুপারশি আইল্যান্ডে পুরুষ প্রবেশ নিষেধ"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*