বাংলাদেশের উন্নয়নে অংশীদার হতে পারে সৌদি

নিউজ ডেস্ক,ববর্তমানকণ্ঠ ডটকম, সোমবার, ২৬ মার্চ ২০১৮: বাংলাদেশের উন্নয়নে অংশীদার হতে পারে সৌদি
বাণিজ্য ও বিনিয়োগে সৌদি আরবের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক বর্তমানে উষ্ণ অবস্থানে আছে। দেশটির ভিশন-২০৩০ সামনে রেখে এই সম্পর্ক আরো উন্নত হবে বলে মনে করেন রিয়াদে বাংলাদেশী রাষ্ট্রদূত গোলাম মশি।

তিনি বলেন, ‘জনগণের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কথা ভেবে দুই দেশেরই নিজেদের অর্থনীতিতে পরিবর্তন আনা উচিত। সৌদি ভিশন-২০৩০ অর্জনে সহায়তা করতে বাংলাদেশ প্রস্তুত।’ সৌদি আরবের এই পদক্ষেপে বাংলাদেশসহ পুরো মুসলিম উম্মাহ লাভবান হবে বলেও মন্তব্য করেন এই কূটনীতিবিদ।

সম্প্রতি বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে জাতিসংঘের তালিকায় উন্নয়নশীল দেশে স্থান করে নেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান গোলাম মশি।

২০১৬ সালের জুনে ও ২০১৭ সালের মে মাসে দুইবার সৌদি আরব সফর করেন শেখ হাসিনা। এতে দুই দেশের সম্পর্কে নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে বলে মনে করেন গোলাম মশি।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ সব ধরনের সহিংসতা ও চরমপন্থার বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এখন বাংলাদেশকে ভালোভাবে মূল্যায়ন করে।’

সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সময়ে ১৯৭৬ সালে বাংলাদেশের সঙ্গে সৌদি আরবের কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপিত হয়। আশির দশকে এদেশ থেকে দক্ষ ও অদক্ষ জনশক্তি নিতে শুরু করে দেশটি। বর্তমানে সেখানে প্রায় ২৫ লাখ বাংলাদেশী বাস করে।

সম্প্রতি দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক প্রতিনিধি পর্যায়ে বেশ কয়েকটি সফর অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়া ২০১৬ সালে সৌদি আরব সফরের সময় দেশে একটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য সৌদি কর্তৃপক্ষকে প্রস্তাব দেন প্রধানমন্ত্রী। এতে আগ্রহ প্রকাশ করে বাদশা সালমান প্রশাসনও।

Be the first to comment on "বাংলাদেশের উন্নয়নে অংশীদার হতে পারে সৌদি"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*