দণ্ড দিয়েছেন আদালত, মুক্তি দেয়ার অধিকার সরকারের নেই

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম,শনিবার,০৭ এপ্রিল ২০১৮: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শক্রমে জেল কোড অনুযায়ী খালেদা জিয়ার চিকিৎসা হবে। অপরাধ অনুযায়ী বেগম খালেদা জিয়াকে দণ্ড দিয়েছেন আদালত। কিন্ত বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার অধিকার সরকারের নেই।

শনিবার দুপুরে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভা ১নং ওয়ার্ড বড়রাজাপুর নিজ বাড়িতে তার মরহুম মা ফজিলাতুন্নেসার চেহলাম অনুষ্ঠানে স্থানীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, এ মুহূর্তে কোনো শর্ত মেনে নেয়ার সুযোগ নেই। সংবিধান অনুযায়ী জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে। নির্বাচনের বিষয়ে সংবিধানে সব কিছু লেখা আছে। সংবিধানের বাইরে আমরা কিছু করতে পারব না।

সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশনারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা এটা তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার। তাই বিএনপি নির্বাচনে যাবে কি যাবে না এটার তাদের সিদ্ধান্তের ব্যাপার। নির্বাচনে বিএনপিকে টেনে আনতে হবে এটা আমরা পারব না। এটা বিএনপির গণতান্ত্রিক অধিকার তারা প্রয়োগ করবে।

তিনি বলেন, বিএনপি ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে ভুল করেছে। এবারও বিএনপির নির্বাচনে আসবে কি আসবে না এটা তাদের সিদ্ধান্তের ব্যাপার। এতে আওয়ামী লীগ কিংবা সরকারের দয়ার ওপর কোনো কিছু নির্ভর করে না।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী, সেনবাগ সংসদ সদস্য মোরশেদ আলম, হাতিয়ার সংসদ সদস্য আয়েশা আলী, সাবেক সংসদ সদস্য মোহাম্মদ আলী, নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক মাহবুবুল আলম তালুকদার ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খায়রুল আনম সেলিম, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী মো. জাহাঙ্গীর আলম, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল, বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খাঁন, সাধারণ সম্পাদক নুর নবী চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান আজমপাশা চৌধুরী রুমেল, স্বাধীনতা ব্যাংকার্স পরিষদের সদস্য ফখরুল ইসলাম রাহাত প্রমূখ।

Be the first to comment on "দণ্ড দিয়েছেন আদালত, মুক্তি দেয়ার অধিকার সরকারের নেই"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*