আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে বন্দুকযুদ্ধে আট জেলায় নিহত ১০

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: সোমবার, ২১ মে ২০১৮: দেশের বিভিন্ন স্থানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ১০ জন নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে যশোরে ৩ জন, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, দিনাজপুর, ঝিনাইদহ, চুয়াডাঙ্গা,টাঙ্গাইল ও নরসিংদীতে একজন করে নিহত হয়েছেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা যায়, নিহতরা সবাই মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। রবিবার (২০ মে) গভীর রাতে বন্দুকযুদ্ধের এসব ঘটনা ঘটে।

আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

ময়মনসিংহ:

ময়মনসিংহ শহরের মাসকান্দা গনসার মোড়ে ডিবি পুলিশের সঙ্গে বন্ধুকযুদ্ধে বিপ্লব নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।

রবিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে বন্দুক যুদ্ধের এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ২ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ আশিকুর রহমান জানান, রবিবার ভোরে শহরের গনসার মোড়ে মাদক ভাগাভাগির খবর পেয়ে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল অভিযান চালায়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এতে দুই পুলিশ সদস্য আহত হন।

আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়তে থাকে। একপর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে মাদক ব্যবসায়ী বিপ্লবকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পরে থাকতে দেখা যায়। তাৎক্ষণিক তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি জানান, ঘটনাস্থল থেকে ২০০ পিস ইয়াবা, তিনটি গুলির খোসা ও ২টি বড় চাকু উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, নিহত বিল্পব পুলিশের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী। বিল্পবের মরদেহ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠনো হয়েছে।

রাজশাহী:

রবিবার গভীর রাতে রাজশাহীর বেলপুকুর থানাধীন ছোট জামিরা এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী লিয়াকত নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, এক রাউন্ড তাজা গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

যশোর:

যশোরে রবিবার (২০ মে) রাত সাড়ে ৩টার দিকে পুলিশের সঙ্গে মাদক ব্যবসায়ীদের পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিনজন নিহত হয়েছেন।

সদর উপজেলার তরফ নওয়াপাড়া ও খোলাডাঙ্গা এলাকায় বন্দুকযুদ্ধের এসব ঘটনা ঘটে। নিহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। লাশগুলো যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

ঘটনাস্থলগুলো থেকে দুইটি শুটারগান, একটি দেশি পিস্তল, ৩ রাউন্ড গুলি, ৬টি গুলির খোসা ও ৬০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

ঝিনাইদহ:

কালিগঞ্জ-নলডাঙ্গা সড়কের সড়কের নরেন্দ্রপুর এলাকায় রবিবার রাত দেড়টার দিকে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ছবদুল মণ্ডল (৪৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।

এ ঘটনায় র‌্যাবের তিন সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে ১০০ বোতল ফেনসিডিল, ১৫০ পিস ইয়াবা, ২ রাউন্ড গুলিসহ একটি নাইন এমএম পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা:

চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মোহাম্মদ আলী (৩২) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। তার বিরুদ্ধে জীবননগরসহ বিভিন্ন থানায় অন্তত ১১টি মাদক মামলা রয়েছে।

রবিরার রাত পৌনে ১টার দিকে উপজেলার উথলী গ্রামের সন্যাসীতলা মাঠে বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনা ঘটে। এঘটনায় পুলিশের ৩ সদস্য আহত হয়েছেন।

আহতরা হলেন- জীবননগর থানা পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মিলন হোসেন, কনস্টেবল ওয়ালিদ রহমান এবং কনেস্টবল জুয়েল হোসেন

ঘটনাস্থল থেকে একটি শর্টগান, দুইটি কার্তুজ, ৩টি রামদা এবং ১ বস্তা ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে।

টাঙ্গাইল:

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে রবিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে মাদকবিরোধী অভিযানে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আবুল কালাম আজাদ নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।

ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, ম্যাগাজিন, তিন রাউন্ড গুলি, ১৫০০ পিস ইয়াবা এবং ১০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।

দিনাজপুর:

জেলার বিরল উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে বাবু ওরফে গালকাটা বাবু (৪৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।

রবিবার রাতে উপজেলার সারদারপাড়া নামক স্থানে নার্সারির পাশে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্রসহ বিপুল পরিমাণে ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।

বিরল থানার ওসি আব্দুল মজিদ জানান, তথ্যের ভিত্তিতে বিশেষ অভিযানে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছালে মাদক ব্যবসায়ীর ৭-৮ জনের একটি দল তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে ঘটনাস্থলেই বাবু ওরফে গালকাটা বাবু (৪৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হন। ঘটনাস্থল থেকে ২টি সামুরাই, ৪টি ককটেল, ২টি পিস্তলসহ ১৯৩ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে পুলিশ।

তিনি জানান, নিহত বাবু বিরল উপজেলার তেঘড়া নাড়ায়নপুর গ্রামের মৃত ওহাব আলীর ছেলে। তার লাশ দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।

নরসিংদী:

পলাশ উপজেলায় র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ইমান আলী (২৮) নামের এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। সোমবার ভোর ৫টার দিকে উপজেলার ঘোড়াশাল খালিশারটেক এলাকায় এ কথিত বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এ সময় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়। ইমান আলীর বাড়ি নরসিংদী সদর উপজেলার নাগরিয়া কান্দি গ্রামে। তার মায়ের নাম মমতাজ বেগম। বাবার নাম মিলন মিয়া (সৎ বাবা)। তবে তার আসল বাবার নাম জানা যায়নি।

র‌্যাবের দাবি, নিহত ইমান আলী নরসিংদীর শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ও নিয়ন্ত্রক। বন্দুকযুদ্ধের পর ইমান আলীর কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তলসহ বিপুল পরিমাণ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

Be the first to comment on "আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে বন্দুকযুদ্ধে আট জেলায় নিহত ১০"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*