আমরা মানুষের জন্য কাজ করেছি: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম,শনিবার,২৩ জুন ২০১৮: প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আমাদের রাজনীতি নিজেদের ভোগ বিলাসের জন্য না। আমরা দেশের মানুষের জন্য রাজনীতি করি। মানুষের জন্য কতটুকু করতে পারলাম, সে চিন্তা করাটাই একজন রাজনীতিকের জীবনের বড় সম্পদ। রাজনীতি দেশের মানুষের কল্যাণের জন্য, দেশ গড়ার জন্য। আমরা মানুষের জন্য কাজ করেছি।’

শনিবার (২৩ জুন) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে গণভবনে আয়োজিত আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় এসব কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সরকার প্রধান বলেন, ‘একেবারে তৃণমূল পর্যায়ের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের কথা চিন্তা করে আমরা পরিকল্পনা নিয়েছি। বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে মানুষ খুন করেছে। দুর্নীতি করেছে। অত্যাচার করেছে। কিন্তু আওয়ামী লীগ মানুষের ঘরে ঘরে উন্নয়ন পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছে। বাংলাদেশ এখন বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে।’

এসময় বিএনপির সমালোচনা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘এদেশে রাজনীতিটা হয়ে গিয়েছিল শো-অফ করার জন্য। আগে যারা ক্ষমতা কুক্ষিগত করেছিল, যারা ক্ষমতার আশেপাশে ছিল শুধু তাদেরই ভাগ্য পরিবর্তন হয়েছে। কিন্তু আমরা সাধারণ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের চেষ্টা করেছি।’

সারা দেশে মাদকবিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘একটি পরিবার ধ্বংস হয়ে যায় মাদকের জন্য। এক একটা পরিবারের দুঃখ এবং কান্না আমি দেখেছি। কাজেই এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা দারিদ্র বিমোচনের জন্য কর্মসূচি হাতে নিয়েছি। এক ইঞ্চি জমি যেন অনাবাদি না থাকে সেটা মাথায় রেখে প্রতিটা বাড়ি যেন খামারে পরিণত হয় তাই একটি বাড়ি, একটি খামার প্রকল্প হাতে নিয়েছি। এই প্রকল্পে আমরা ট্রেনিং দিচ্ছি, আমরা তাদেরকে ঋণ দিচ্ছি। তারা যে কাজ করতে চায় সে কাজের মধ্য দিয়ে তারা যদি ১০০ টাকা জমাতে পারে, সরকারের পক্ষ থেকে আরও ১০০ টাকা দিয়ে সঞ্চয়ের ব্যবস্থা করে দিয়েছি।’

১৯৮১ সালে দেশে ফিরে আওয়ামী লীগের দায়িত্ব নেওয়ার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘১৯৭৫ সালে পরিবার হারিয়ে আমি আওয়ামী লীগের কাছেই বাবার ভালোবাসা পেয়েছি, মায়ের ভালোবাসা পেয়েছি, ভাইয়ের ভালোবাসা পেয়েছি। আওয়ামী লীগের মধ্যেই আমি আমার পরিবারকে পেয়েছি।’

bknews2010

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *