গাজীপুরের নগর পিতা জাহাঙ্গীর

নিজস্ব প্রতিবেদক,বুধবার,২৭ জুন ২০১৮: গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন (জিসিসি) নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম নৌকা প্রতীক নিয়ে বেসরকারি ফলাফলে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে নগর পিতা নির্বাচিত হতে চলেছেন। ৪২৫টি কেন্দ্রের মধ্যে রাত ৩টা পর্যন্ত প্রাপ্ত ৩৩০টি কেন্দ্রের বেসরকারি ফলাফলে নৌকা প্রতীক নিয়ে জাহাঙ্গীর আলম পেয়েছেন ৩ হাজার ০৪ হাজার ৫৫৯ ভোট। আর তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্ধী বিএনপির প্রার্থী মো. হাসান উদ্দিন সরকার পেয়েছেন ১ লাখ ৫২ হাজার ৫০৯ ভোট।

গাজীপুরের বঙ্গতাজ মিলনায়তনে সিটি নির্বাচনের ফলাফল সংগ্রহ ও পরিবেশন করা হচ্ছে। গাজীপুর সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা রকিব উদ্দিন মন্ডল এই ফলাফল ঘোষণা করছেন। নির্বাচন কমিশন সূত্র জানিয়েছে, এই নির্বাচনে মোট ভোট কেন্দ্র ছিল ৪২৫টি। এর মধ্যে অনিয়মের কারণে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে ৯টি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করা হয়েছে। স্থগিত ৯টি কেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ২৩ হাজার ৯৫৯।

নির্বাচন কমিশন সূত্র জানিয়েছে, আগামীকাল সকাল ১০টায় আনুষ্ঠানিকভাবে এই সিটি নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করা হবে। ৫৭টি সাধারণ ও ১৯টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড নিয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন গঠিত। এবার এই সিটিতে ৬টি কেন্দ্রে ইভিএম-এ ভোট নেয়া হয়েছে। ওই ৬টি কেন্দ্রে নৌকা পেয়েছে ৪৮১০ এবং ধানের শীষ ২২৯৭ ভোট পেয়েছে।

প্রায় ৩৩০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৩ সালের ৬ জুলাই। এবার এর দ্বিতীয় নির্বাচন। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী গত ২৪ এপ্রিল থেকে আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হয়। ১৫ মে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু নির্বাচন নিয়ে হাইকোর্টে স্থগিতাদেশ এবং পরে আপিল বিভাগের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের পর নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী আজ মঙ্গলবার ভোট অনুষ্ঠিত হয়।

নির্বাচন কমিশন সচিব বলেন, কমিশন ভোটে বিন্দুমাত্র অনিয়ম বরদাস্ত করেনি। কমিশনের নির্দেশেই অনিয়মের কারণে ৯টি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করা হয়েছে। বিন্দুমাত্র অনিয়মের অভিযোগ পেলেই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। গাজীপুর সিটি নির্বাচনের রিটানিং কর্মকর্তা রকিব উদ্দিন মন্ডল জানান, তিনি ১৪টি কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন। এর মধ্যে সবগুলো কেন্দ্রে নির্বাচন সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

bknews2010

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *