Fri. Aug 23rd, 2019

Bartaman Kanho

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম

শান্তি ও জননিরাপত্তা নিশ্চিতই সরকারের প্রধান লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক । বর্তমানকণ্ঠ ডটকম-
অনেক চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে সব দলের অংশগ্রহণে সফল নির্বাচনের মধ্য দিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, ‘মানুষের জীবনে শান্তি ও নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করাই তাঁর সরকারের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য বলেও এসময় উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

বুধবার (৩০ জানুয়ারি) একাদশ জাতীয় সংসদের উদ্বোধনী অধিবেশনে দেয়া ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘এবারের নির্বাচনে সকল দল স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নিয়েছে। জনগণের উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটদানের মধ্য দিয়ে এ নির্বাচন সফল হয়েছে।’

এর আগে বিকেল ৩টায় কোরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে একাদশ সংসদের প্রথম অধিবেশন শুরু হয়। অধিবেশনের শুরুতেই স্পিকার হিসেবে ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ও ডেপুটি স্পিকার হিসেবে ফজলে রাব্বী মিয়াকে পুনর্নির্বাচন করা হয়। দুজনই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।

ভাষণের শুরুতেই নবনির্বাচিত স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকারকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী।

এসময় তিনি বলেন, ‘সংসদে সব দলের সদস্যদের সমান সুযোগ নিশ্চিত করতে হবে। এক্ষেত্রে সরকারি দল সব ধরনের সহযোগিতা করবে।’

সংসদে বিরোধী দলের ভূমিকা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় সমালোচনা সব সময় গুরুত্বপূর্ণ। বিরোধী দল যথাযথভাবে ও কোনও বাধা ছাড়াই সরকারের সমালোচনা করতে পারবে।’

অনেক ঘাত-প্রতিঘাত পার হয়ে আওয়ামী লীগ দেশে গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে সক্ষম হয়েছে বলেও এসময় উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

আওয়ামী লীগকে টানা তৃতীয়বারের মতো বিজয়ী করায় আবারও দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান শেখ হাসিনা। একইসঙ্গে জনগণের ভোটের মর্যাদা রক্ষায় সর্বাত্মক প্রয়াস চলানোর প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন তিনি।

নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের উদ্দেশ্যে শেখ হাসিনা বলেন, ‘জনগণ ভোট দিয়ে আপনাদেরকে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করেছে। জনপ্রতিনিধি হিসেবে সবাইকে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করতে হবে। ভোটারদের সার্বিক উন্নয়ন ও স্বার্থ সংরক্ষণ করতে হবে।’

সাংসদদের উদ্দেশ্যে তিনি আরও বলেন, ‘দেশে যেন শান্তিপূর্ণ অবস্থা বিরাজ করে, বাংলাদেশ যেন জঙ্গি, মাদক ও দুর্নীতিমুক্ত উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে সে লক্ষ্য নিয়েই আপনারা নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করবেন।’

ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সমাজ গড়ে তোলার অঙ্গীকার ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আবারও প্রমাণ হয়েছে- গণতন্ত্রই একটি দেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যায়। আমরা এই উন্নয়নের ধারাকে যে কোনও মূল্যে ধরে রাখতে চাই।’

একাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে সরকারের গঠনমূলক সমালোচনার মধ্য দিয়ে সংসদ প্রাণবন্ত ও কার্যকর হবে বলেও এসময় আশা প্রকাশ করেন সরকারি ও বিরোধী দলীয় সাংসদরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *