টাইগারদের সেই ঐতিহাসিক জয়কে ‘সন্দেহজনক’ বলছে পাকিস্তান!

স্পোর্টস ডেস্ক । বর্তমানকণ্ঠ ডটকম:
১৯৯৯ সালের ৩১ মে, বাংলাদেশ ক্রিকেটের এক ঐতিহাসিক দিন। এদিন যাদের বিরুদ্ধে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জন করেছিল সেই পাকিস্তানকে হারিয়ে চিরস্মরণীয় করে রেখেছে বাংলাদেশ।

এটি ছিল বড় কোনো দলের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের প্রথম জয় এবং পাকিস্তান ছিল সেই বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট। বাংলাদেশ সহযোগী সদস্য হিসেবে প্রথমবারের মতো অংশগ্রহণ করেছিল বিশ্বকাপে তাই বিশ্বকাপের ইতিহাসে এখনো সে ম্যাচকে ধরা হয় সবচেয়ে বড় অঘটন হিসেবে।

কয়েক মাস সেই ঐতিহাসিক দিনের ২০ বছর পূর্তির অপেক্ষা। কিন্তু সে ঐতিহাসিক মুহূর্তে কালি মাখতে চাইছেন পাকিস্তানের সাবেক বোর্ড সভাপতি। বিশ্বকাপে পাকিস্তানের সে হারকে ‘সন্দেহজনক’ বলছেন এই কর্মকর্তা।

ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ধরাশায়ী হওয়াতে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড সভাপতির পদ খোয়ান খালিদ মেহমুদ। ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ধরাশায়ী হওয়াতেই এমন দশা তার। তবে দেড় যুগ পর আলোচনা করতে গিয়ে সে ফাইনাল হয়, বাংলাদেশ ম্যাচটাই বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে তার কাছে। বিশ্বকাপের সবচেয়ে বড় অঘটন বলে এখনো আলোচিত সে ঘটনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে পাকিস্তানের টিভি চ্যানেল জিও নিউজের অনুষ্ঠান স্কোরে। সে অনুষ্ঠানেই সেই বিশ্বকাপের স্কোয়াডের খেলোয়াড়দের গায়ে ‘সন্দেহজনক’ ট্যাগ লাগিয়ে দিয়েছেন মেহমুদ।

মেহমুদের দাবি বিশ্বকাপের আগেই দলের খেলোয়াড়দের আচরণ নিয়ে সন্দেহের কথা জানিয়েছিলেন কোচ জাভেদ মিয়াঁদাদ। বিশ্বকাপের ঠিক আগ মুহূর্তে সাফল্য এনে দেয়া মিয়াঁদাদের দায়িত্ব থেকে সরে যাওয়া নিয়ে আলোচনা করেছেন মেহমুদ। সাবেক বোর্ড সভাপতির দাবি সে বছর ১২ এপ্রিল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে পাকিস্তানের হারে খেলোয়াড়দের ‘সন্দেহজনক’ আচরণ দেখেই নাকি মিয়াঁদাদ পদত্যাগ করেছেন। খালিদ মেহমুদের দাবি, তাঁরও তেমন সন্দেহ জেগেছিল।

মেহমুদের দাবি, ওয়াসিম আকরামের অধীনে বাংলাদেশের কাছে পাকিস্তানের হারও অমন ‘সন্দেহজনক’। তার ধারণা পাকিস্তান দলের যে স্কোয়াড তাতে এমন হার প্রশ্ন তুলবেই। এই অঘটন তাকে চিন্তিত ও রাগান্বিত করেছিল। এত এত তারকা থাকার পরও পাকিস্তানের অমন হারের সঠিক তদন্ত হওয়া উচিত ছিল বলেই মনে করেন মেহমুদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *