Thu. Sep 19th, 2019

Bartaman Kanho

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম

তিন রোহিঙ্গা জঙ্গির ১০ বছরের কারাদণ্ড

ডেস্ক রিপোর্ট | বর্তমানকণ্ঠ ডটকম:
রাজধানীর লালবাগ থানায় বিস্ফোরক আইনে করা মামলায় মিয়ানমারের জঙ্গি সংগঠনের সক্রিয় তিন সদস্যের ১০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। রোববার ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ ও চার নম্বর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রবিউল আলম এ রায় ঘোষণা করেন। কারাদণ্ডের পাশাপাশি প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- মো. নূর হোসেন ওরফে রফিকুল ইসলাম (৩০), ইয়াসির আরাফাত (২৬) ও ওমর করিম (২৯)। কারাদণ্ডের পাশাপাশি তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে আদালত। জরিমানার টাকা দিতে না পারলে আরও ছয় মাস জেল খাটতে হবে তাদের।

রাজধানীর আজিমপুরের স্যার সলিমুল্লাহ মুসলিম এতিমখানার পাশের রাস্তা থেকে প্রায় সাড়ে চার বছর আগে বিস্ফোরকসহ গ্রেপ্তার করার পর তাদের বিরুদ্ধে এ মামলা হয়েছিল। ওই সময় তাদের কাছ থেকে পাঁচটি ডেটোনেটর, দুটি জেল বোমা এবং বিস্ফোরক তৈরির উপাদান উদ্ধার করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছিল।

এদের মধ্যে ওমর করিম পলাতক। তিনি মিয়ানমারের আকিয়ার জেলার পাথরকিল্লাহ থানার পিফারাং গ্রামের মৃত আবুল বসরের ছেলে।

২০১৪ সালের ৩০ নভেম্বর লালবাগ থানাধীন এতিমখানা রোড থেকে নূর হোসেন এবং ইয়াসিরকে গ্রেফতার করা হয় এবং ওমর করিমসহ চারজন পালিয়ে যান। ওই সময় নূর হোসেন ও ইয়াসিরের সঙ্গে থাকা শপিং ব্যাগের ভেতর পটাশিয়াম ক্লোরেড ও আর্সেনিক ডাই সালফাইড জাতীয় বিস্ফোরক দ্রব্য জব্দ করে ডিবি।

ওই ঘটনার পরদিন ১ ডিসেম্বর লালবাগ থানায় মামলা করে ওই টিমের এসআই এসএম রাইসুল ইসলাম।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, আসামিরা মিয়ানমারের নাগরিক এবং তারা আরএসও, জিআরসি, এআরইউ এবং ইসলামিক জঙ্গি সংগঠনের সক্রিয় সদস্য। তারা আন্তর্জাতিক ইসলামিক উগ্রপন্থী সংগঠনের সহায়তায় বাংলাদেশে নাশকতা করার জন্য একত্রিত হয়।

২০১৫ সালের ৩ মার্চ ডিবির এসআই মো. আব্দুল কাদের মিয়া তিনজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন।

একই বছরের ১২ জুলাই আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত। এ মামলায় বিভিন্ন সময় ৯ জন আদালতে সাক্ষ্য দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *