| ২১শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং | ৭ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৫শে জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী | মঙ্গলবার ফিলিস্তিনে ইসরাইলের অবৈধ দখলদারিত্ব ও জর্ডান উপত্যকা দখলের হুমকির তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ – Bartaman Kanho

Bartaman Kanho

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম

ফিলিস্তিনে ইসরাইলের অবৈধ দখলদারিত্ব ও জর্ডান উপত্যকা দখলের হুমকির তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ

ওআইসির সভায় রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্তমানকন্ঠ ডটকম, সৌদি আরব : ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরে ইসরাইলের অবৈধ দখলদারিত্ব ও সেদেশের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু কর্তৃক জর্ডানের উপত্যকা দখলের হুমকির তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ। ওআইসির পররাষ্ট্র মন্ত্রীদের বিশেষ সভায় সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও ওআইসি স্হায়ী প্রতিনিধি গোলাম মসীহ বলেন, বাংলাদেশ সংবিধান অনুযায়ী নিপীড়িত মানুষের পাশে থাকার এবং যেকোন মূল্যে মুসলিম উম্মাহর একতা বজায় রাখার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।

গোলাম মসীহ বলেন, ফিলিস্তিনে স্থায়ীভাবে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে জাতিসংঘের সংশ্লিষ্ট রেজুলেশন এর বাস্তবায়ন, রোড ম্যাপ ও আরব শান্তি পরিকল্পনার গুরুত্ব সর্বাধিক। বাংলাদেশ ওআইসি ও জাতিসংঘের সদস্য হিসেবে ফিলিস্তিন প্রশ্নে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাথে কাজ করে যাবে। তিনি আসন্ন জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে ওআইসি সদস্য রাষ্ট্রসমূহ তাদের মূল বক্তব্যে এ বিষয়টি তুলে ধরবেন বলে জানান।
এই জরুরী সভায় সৌদি আরব ছাড়া ও তুরস্ক, কুয়েত, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ফিলিস্তিন সহ আরও ২০ টি দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রীগণ যোগদান করেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন সৌদি আরবের পররাষ্ট্র মন্ত্রী ইব্রাহিম আবদুল আজিজ আল- আসাফ।

সভায় ফিলিস্তিন বিষয়ে যে রেজুলেশনটি গৃহীত হয়, সেখানে জাতিসংঘের আসন্ন সাধারন পরিষদের সম্মেলনে ইসরায়েলের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ওআইসি সদস্য রাষ্ট্র সমূহকে কথা বলার অনুরোধ জানিয়ে দেয়া বাংলাদেশের প্রস্তাবনা সর্বসম্মতিক্রমে অন্তর্ভুক্ত হয়। ফিলিস্তিন ইস্যু ছাড়াও সম্প্রতি সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশের তেলক্ষেত্রে ড্রোন হামলার তীব্র নিন্দা জানানো হয় এবং এ বিষয়ে একটি পৃথক রেজুলেশন গ্রহণ করা হয়।
সভা শেষে রাষ্ট্রদূত ওআইসির মহাসচিব ড. ইউসুফ বিন আহমেদ আল ওথাইমিন এর সাথে সাক্ষাৎ করেন ও আগামী বছর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উদযাপনের জন্য গঠিত আন্তর্জাতিক কমিটির সদস্য হওয়ার আমন্ত্রণ পত্র তুলে দিলে মহাসচিব সানন্দচিত্তে তা গ্রহণ করেন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *