৪ সন্তানকে ফেলে পরকিয়ায় মগ্ন!

কক্সবাজার,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: ভালোবাসা আর জৈবিক চাহিদা এক নয়। কারও দরকার ভালোবাস আবার কারো দরকার জৈবিক চাহিদা এ নিয়েই চলছে জগৎ সংসার। আর এ কারণেই অন্যের হাত ধরে চলে যেতে হলো জেলা সদর উপজেলার ঈদগাঁওয়ের আরেফা আক্তারকে (২৬)। স্বামী প্রবাসী হওয়ার কারণে এই নারী অন্য এক পুরুষের সঙ্গে পরকিয়া প্রেমে আসক্ত হয়ে পড়ে। আর তার হাত ধরেই ঘর ছাড়ে এই নারী। এতে তার ৪ সন্তান হারিয়ে ফেলেছে পৃথিবীর সব মায়া-মমতা।

এ ঘটনায় আরেফার শ্বশুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, সদর উপজেলার চৌফলদণ্ডীর কালু ফকির পাড়ার বেদার মিয়ার মেয়ে আরেফা আক্তার (২৬) এর সাথে জালালাবাদ দক্ষিণ লরাবাকের আলতাজ আহমদের ছেলে রাজা মিয়ার প্রায় ১২ বছর আগে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ৪ সন্তানের জন্ম হয়। রাজা মিয়া ৪ বছর আগে মালেশিয়ায় যান। স্বামী বিদেশ যাওয়ার পরপরই আরেফা ভাড়া বাসায় থাকতে শুরু করেন। আর এসময়ই তিনি পরকিয়ায় আসক্ত হয়ে পড়েন।

আরেফার বড় ছেলে লেমন (১২) জানায়, চকরিয়ার ধনিয়ার চরের কৈয়ারবিলের শাহ আলমের ছেলে মিজান প্রায় সময় আমাদের বাসায় আসা-যাওয়া করতো। তার মায়ের পরকিয়ার কথা নানি মেহেরুন্নেছা ও দাদা আলতাজকে জানিয়েছিল সে।

আরেফা আক্তারের মা মেহেরুন্নেছা জানান, স্বামী বিদেশ যাওয়ার পর থেকে তার মেয়ে পরকিয়ায় আসক্ত হয়ে পড়েছে।

তিনি আরো জানান, গত রমজানের আগেও তার মেয়ে একজনের সাথে পালিয়ে যায়। প্রায় দেড় মাস পর আবার ফিরে আসে আরেফা। তার শ্বশুর ৪ সন্তানের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে তাকে ফিরিয়ে নিয়ে আসে।

কিন্তু কথা রাখেনি আরেফা আক্তার। আবারো সন্তানদের ফেলে গত ৩০ জুলাই প্রেমিকের হাত ধরে ঘর ছাড়া হয় আরেফা। সাথে স্বামীর দেয়া ১০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও ২ লাখ নগদ টাকাও নিয়ে যায়।

আরেফার স্বামী রাজা মিয়া মালেশিয়া থেকে কান্নাজড়িত কণ্ঠে ব্রেকিংনিউজকে জানান, তিনি স্ত্রী-সন্তানদের ভবিষ্যতের আশায় তার নিজের সুখকে বিসর্জন দিয়ে বিদেশে পাড়ি জমান। কিন্তু আমার অবর্তমানে আরেফা পরকিয়ায় আসক্ত হয়।

রাজা মিয়ার বাবা আলতাজ জানান, তার ৪ জন নাতি-নাতনি বর্তমানে তাদের নানির বাসায় কান্নাকাটি করে দিনাতিপাত করছে। এ ঘটনায় ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপ পরিদর্শক (এসআই) দেবাশীষ সরকার জানান, এ ধরনের একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর সহকারি উপপরিদর্শক মোহাম্মদ নছিমকে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -