ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ শিক্ষার্থীর আমরণ অনশন

নিজস্ব প্রতিবেদক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিভাগের এক শিক্ষককে চাকরিচ্যুতির নোটিশ দেওয়ার জের ধরে চলমান সংকটের পঞ্চম দিনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ শিক্ষার্থী আমরণ অনশন শুরু করেছেন।

বৃহস্পতিবার (০৩ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে ওই ৬ শিক্ষার্থী হাতে প্ল্যাকার্ড নিয়ে আমরণ অনশন শুরু করেন।

৬ শিক্ষার্থীরা হলেন- আইন বিভাগের কামরুন নাহার, ইরফানুল রহমান, সাদিয়া আফরিন, শেখ নোমান, ম্যাথমেটিকস ও ন্যাচারাল সায়েন্স বিভাগের আকাশ আহমেদ ও বিজনেস স্কুলের ইয়াসিনুর রহমান।

সকাল ১০টা থেকে মহাখালীর ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ক্যাম্পাসের সামনে ও পাশের সড়কে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জড়ো হন। তারা বিশ্ববিদ্যালয়-সংলগ্ন সড়কে বসে অবস্থান নেন। বেলা ১১টা থেকে আমরণ অনশন শুরু করেন ছয় শিক্ষার্থী।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সব বিভাগে ক্লাস বন্ধ থাকার মধ্যেই অনশন করছেন ৬ শিক্ষার্থী। পাশাপাশি মহাখালীতে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রধান ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীরা আজও বিক্ষোভ করছেন।

এর আগে গতকাল বুধবার থেকে দুদিনের জন্য ক্লাস বন্ধ ঘোষণা করে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তবে যেসব পরীক্ষা চলমান রয়েছে, তা অব্যাহত থাকবে বলে জানানো হয়।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, চুক্তিভিত্তিক শিক্ষক ফারহান উদ্দিন আহমেদকে গত ৩০ জুলাই মানবসম্পদ বিভাগ থেকে চাকরিচ্যুতির নোটিশ দেওয়া হয়। কিন্তু তিনি তা গ্রহণে অস্বীকৃতি জানালে রেজিস্ট্রার বিভাগের একাধিক কর্মকর্তা তার আইডি কার্ড কেড়ে নিয়ে তাকে লাঞ্ছিত করেন।

অনশনরত দুই শিক্ষার্থী কামরুন নাহার ও সাদিয়া আফরিন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরুষ নিরাপত্তা কর্মীরা ছাত্রীদের শরীরে হাত দিয়েছে, আমাদের লাঞ্ছিত করেছে। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের পদত্যাগ ও এর বিচার চাই। আমাদের দাবি না মানা পর্যন্ত অনশন চলবে।’

শিক্ষার্থীদের প্ল্যাকার্ডে লিখা ছিল- ‘বিচারের দাবিতে অনশন, তবুও চুপ প্রশাসন’, ‘বোনের গায়ে হাত কেন? বিচার চাই, জবাব চাই’, ‘অনশন অনশন, বিচার চাই, বিচার চাই’ প্রভৃতি।
 
অনশনরত শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, গত ১ আগস্ট বিক্ষোভ চলাকালে ছাত্রছাত্রীদের লাঞ্ছিত করা হয়। এ ঘটনায় সরকারের কাছেও বিচার দাবি করেন তারা।

এদিকে চাকরিচ্যুত শিক্ষক ফারহান উদ্দিন আজ ঢাকা জেলা দায়রা জজ আদালতে মামলা করতে গেছেন বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় পরিস্থিতি সামাল দিতে ও চলমান সংকট সমাধানে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সহ-উপাচার্য অধ্যাপক আ ফ ম ইউসূফ হায়দার, অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলামসহ ৫ সদস্যের অনুসন্ধান কমিটি পুনর্গঠন করা হয়েছে।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -