অপু আমাকে দূরে ঠেলে দিতে পারবে না : শাকিব

শোবিজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: গত দুদিন ধরে ‘টক অব দ্যা কান্ট্রি’ চিত্রনায়ক-নায়িকা শাকিব খান-অপু বিশ্বাসের সাংসারিক দ্বন্দ্বের খবর।  যা আবার মহামিলনের পরিনতিতে সমাধাণের পথ খুঁজছে। অর্থাত্ শাকিব-অপুর সংসারে দ্বন্দ্বের অবসান ঘটছে শিগগিরই। গতকাল একান্ত সাক্ষাত্কারে শাকিব খান ইত্তেফাকের কাছে তা এ কথা বলেন।

কী এমন ঘটেছিল?

কিন্তু কী এমন হয়েছিল, যে প্রায় আট বছর সংসারের খবর গোপন রাখার পরও হঠাত্ অপু বিশ্বাসকে তার স্বামী ও সন্তানের বাবার স্বীকৃতিতে টিভি লাইভে এসে কথা বলতে হলো। শাকিব খান-অপু বিশ্বাস প্রসঙ্গের মাঝে যার নাম খুব বেশি শোনা গেছে তিনি শবনম বুবলি। বুবলির সাথে শাকিবের ঘনিষ্ঠতা মানতে পারেননি অপু বিশ্বাস। শাকিব খান ‘ইত্তেফাক’কে বলেন,‘ দেখুন তিশা-মীম বা কলকাতার নায়িকাদের  সাথে আমি ছবি করলে কখনও অপুর সমস্যা হতো না। কিন্তু বুবলীর সাথে কাজ করলেই যত সমস্যা। এই মেয়েটি কোনো একদিন শুটিং সেটে অপু বিশ্বাসের সাথে খুব বেয়াদবি করেছে বলে আমি শুনেছি। কিন্তু আমি দেখিনি। বুবলিও অস্বীকার করেছে। সেই থেকে বুবলিকে সহ্য করতে পারে না অপু বিশ্বাস। এটাকে আমি স্রেফ ছেলেমানুষিই বলবো।’ সাকিব সাংবাদিকদের জানান, আমি আমার সন্তান ও অপুকে নিয়েই থাকবো। অপু আমাকে দূরে ঠেলে দিতে পারবে না। কিন্তু এর আগে শাকিব বলেছিলেন, তিনি শুধু তার সন্তানের দায়িত্ব নেবেন। অপুর দায়িত্ব নেবেন না।

ঠিক এখানেই বাধে বিপত্তি। ‘রংবাজ’ ছবিটি দুই বাংলার যৌথ প্রযোজনার। দীর্ঘদিন পর বড় ব্যানারে শাকিব-বুবলীর এই নতুন ছবির সাইনিংটা মেনে নিতে পারছিলেন না। সর্বশেষ ‘রংবাজ’ ছবিতে বুবলিকে শাকিবের নায়িকা করায় ক্ষিপ্ত হয়ে টিভি লাইভে এসে ‘হাটে হাঁড়ি ভেঙ্গে দিয়েছেন’ অপু। গত এক বছর বুবলির সঙ্গে শাকিবের বন্ধুত্ব ঘনিষ্ঠতায় রূপ নেয়। এ সময়টাতে অপুর সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হয় শাকিবের। মাত্র মাসখানেক আগে বুবলির বাসায় নৈশভোজে শাকিব খান অংশ নিয়েছিলেন। সেখানে ছবি তুলতে বারণ করেন শাকিব খান। কিন্তু রাত দেড়টার দিকে ছবিটি পোস্ট করে দেন বুবলি ও তার পরিবারের সদস্যরা শাকিবের অনুরোধ অমান্য করেই। ছবির ক্যাপশন ছিল ‘ফ্যামিলি টাইম’। এখানেই বাধে বিপত্তি। ফেসবুকে এই ছবিটি দেখে দীর্ঘদিন আত্মগোপনে থাকা চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস তার রাগকে আর কন্ট্রোল করতে পারেননি। সাথে সাথে সেই মাঝরাতেই ফোনে বিনোদন সাংবাদিকদের বেশ ক’জনকে ফোন  করে বুবলি প্রসঙ্গে বলতে থাকেন। ইত্তেফাককেও বলেন একই কথা। সেদিনই বলে দেনি তিনি যে একদিন এমন এক বোমা ফাটানো নিউজ নিয়ে তিনি আসবেন, যেদিন সাংবাদিকরা তাকে নিয়েই শুধু আলোচনা করবেন। শাকিব তাকে সামলাতে পাগল হয়ে যাবে। ঠিক তাই ঘটলো।

অপু অভিযোগ করেন, ‘গত এক বছর শাকিবকে ঠিকমতো কাছে পাননি তিনি। জয়ের জন্ম হওয়ার সময়টাতেও শাকিবকে কাছে পাইনি। এ সময়টাতে শাকিব সিনেমার শুটিং নিয়ে ব্যস্ত ছিল। আমার ছেড়ে দেওয়া দুটো ছবিতে বুবলিকে নিয়ে অভিনয় করেছে শাকিব। আমি তাকে বলেছি, অন্যকোনো নায়িকার সঙ্গে অভিনয় করো। নুসরাত ফারিয়া, কিংবা অন্যকোনো নায়িকা হলে তো আমার আপত্তি নেই। কয়েক দিন আগে বুবলি তার ফেসবুকে শাকিবের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করে লেখে ‘ফ্যামিলি টাইম’। এটা আমি মেনে নিতে পারিনি। বুবলিকে ফোন করে গালি দিয়েছি। যেটা আমার ভুল ছিল। আমি বুবলিকে সরি বলেছি এইজন্য।’ আর তারই জের ধরে শাকিবকে যখন অপু বিশ্বাস জেরা করলেন, তখন শাকিব কথা দেন যে ‘রংবাজ’ ছবিতে নয়, কোরবানী ঈদে অপু বিশ্বাসকে নেওয়া হবে। অন্যদিকে ‘রংবাজে’ বুবলিকে বাদ দিতে পরামর্শ দেন অপু বিশ্বাস। কিন্তু শাকিব খান অপুর সেই কথা রাখেননি।

শাকিবের ভাষ্যমতে সেই ‘রংবাজের’ কাস্টিং নিয়েই মূলত দ্বন্দ্বের শুরু। শেষ পর্যন্ত ‘রংবাজে’র শুটিং শিডিউল চুড়ান্ত হয়ে যখন ছবিটি সেটে গড়াবে , তখন ‘হাঁটে হাঁড়ি ভাঙলেন’ অপু বিশ্বাস। গত ১০ এপ্রিল সকালে যখন শাকিব কলকাতা থেকে ফিরে রেস্ট নিচ্ছিলেন। তার ঘন্টাখানেক বাদেই টেলিভিশন লাইভে দেখেন তার স্ত্রী অপু বিশ্বাস ও সন্তান আব্রাহাম খান জয়কে।

এরপরের ঘটনা দেশবাসী সকলেই জানেন। তবে সর্বশেষ খরব হলো রংবাজ ছবিটির প্রযোজক ভারতের ভেঙ্কটেশ ফিল্মস এই ঘটনাটি শুনে আরো দ্রুত ছবিটির কাজ শেষ করার অুরোধ জানিয়েছেন শাকিবকে। তাদের ধারণামতে এই তর্ক-বিতর্কের রেশ থাকতেই ছবিটি রিলিজ দিতে চান খুব জলদি।

অন্যদিকে অপুর লাইভের ঘটনা ও এই বোমা ফাটানো খবর পেয়ে নির্মাতা শাহীন সুমন তড়িত্ গতিতে এফডিসিতে ‘অপুর সংসার’ নামের একটি ছবির নাম এন্ট্রি করেন। যেখানে জায়েদ ও সাইমন প্রাথমিক কাস্টিং এর রাখা হয়েছে বলে জানা যায়।

পরবর্তীতে অপু-শাকিবের অভিমানের বরফ গলতে থাকলে শাকিব নিজে সমিতির অন্য সকলকে ফোন করে ‘অপুর সংসার’ ছবিটির নাম বাতিল করেন বলে জানা যায়।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -