মুসলমান হত্যার প্রতিবাদে ভারতজুড়ে বিক্ষোভ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : একের পর এক মুসলমানদের পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় ভারতে বুধবার প্রতিবাদ বিক্ষোভে নেমেছিলেন নাগরিক সমাজ । এদিন  দিল্লি থেকে তিরুঅনন্তপুরম, কলকাতা থেকে মুম্বই, এমনকী লন্ডন, কেমব্রিজ হয়ে আমেরিকার বস্টন পর্যন্ত আমজনতা রাস্তায় নেমে কোথাও স্লোগান তুলে, কোথাও প্ল্যাকার্ড ধরে নীরবে একটি কথাই বলল— ‘ভাই, আমি তোমার দলে নেই।’

একটি বেসরকারী হিসাবে বলা হয়েছে, ২০১৫ সাল থেকে এ পর্যন্ত অন্তত ১৩টি এ ধরণের ঘটনা হয়েছে, যেখানে মুসলমান ব্যক্তিকে চিহ্নিত করে মারধর করা হয়েছে। গত তিনমাসে এধরণের গণপিটুনিতে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ছয়জন মুসলমানের।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ক্ষমতায় আসার পরেই ভারতের অসহিষ্ণুতা আর হিন্দুত্ববাদীদের দাপট বাড়তে শুরু করে। দাদরির মহম্মদ আখলাখ থেকে আলওয়ারের পেহলু খানের গণপিটুনিতে মৃত্যুর ঘটনা তার দিকেই ইঙ্গিত দিচ্ছে । সর্বশেষ ট্রেনে হরিয়ানার বল্লভগড়ের কিশোর জুনেইদের মৃত্যুতে বিক্ষোভের ডাক দেন নাগরিক সমাজ। ‘নট ইন মাই নেম’ নামের এই আন্দোলনের প্রথম ডাক দিয়েছিলেন তথ্যচিত্র পরিচালক সাবা দেওয়ান। বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় দিল্লির যন্তর-মন্তরে জমায়েত হয়ে নীরব প্রতিবাদে সামিল হতে বলেছিলেন তিনি বন্ধুদের। সেই প্রতিবাদই ছড়িয়ে পড়ে সারা ভারতে। কলকাতা, ইলাহাবাদ, বেঙ্গালুরু, চণ্ডীগড়, জয়পুর, হায়দরাবাদ, কোচি, লখনউ, পটনা, পুণে, চেন্নাই— নির্ভয়ার মৃত্যুর পরে ভারতজুড়ে সাধারণ নাগরিকের এমন অরাজনৈতিক প্রতিবাদ হয় সম্ভবত এটাই প্রথম বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার।

'নট ইন মাই নেম' নাম দিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে কলকাতাতেও। দক্ষিণ কলকাতার একটি খোলামেলা বিপনি বিতান চত্বরে কয়েকশো মানুষ জড়ো হয়েছিলেন শুধুমাত্র একটি হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ বা ফেসবুক পোস্ট দেখে। 'নট ইন মাই নেম' হ্যাশ ট্যাগও চালু হয়েছে মুসলমানদের চিহ্নিত করে গণপিটুনির ঘটনাগুলির বিরুদ্ধে।

কলকাতায় যারা এই প্রতিবাদ সমাবেশের উদ্যোগটা নিয়েছিলেন, তাদেরই অন্যতম অঞ্চিতা ঘটক বলছিলেন, ‘চতুর্দিকে যেসব ঘটনা হচ্ছে, তাতে সত্যিই আমরা বিচলিত। আমাদের মনে হচ্ছে দেশে হিন্দুত্বের একটা আগ্রাসন শুরু হয়েছে। একই সঙ্গে খুবই উগ্র জাতীয়তাবাদও তৈরী করা হচ্ছে, যার সঙ্গে আবার হিন্দু ধর্মকে জুড়ে দেওয়া হচ্ছে।’

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -