হঠাৎ বন্ধ ফেসবুক, অবাক অনেকেই

নিজস্ব প্রতিবেদক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: হঠাৎ করেই বন্ধ হয়ে গেছে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট। কারণটা জানা না থাকায় ‘থ’ হয়ে পড়েছেন ব্যবহারকারীরা। শনিবার সকাল থেকেই বাংলাদেশে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের অনেকেই তাদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ পাচ্ছেন। ধারণা করা হচ্ছে, গত ৬ মাস ধরে চলা ‘স্প্যাম অপারেশনের’ একটি নতুন পদক্ষেপ হিসেবেই এইসব অ্যাকাউন্ট বন্ধ করা হয়েছে।

ভুয়া অ্যাকাউন্ট, আপত্তিকর পোস্ট, লাইক-কমেন্ট ঠেকাতে এমন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে ফেসবুক সিকিউরিটি টিমের এক পোস্টে বলা হয়েছে।

বন্ধ হওয়া অ্যাকাউন্ট চালু করতে যাচাই (ভেরিফিকেশন) প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে বলছে ফেসবুক।

একই সঙ্গে জাতীয় পরিচয়পত্র, মেইল ঠিকানা ও অ্যাকাউন্ট নাম ফেসবুকের কাছে পাঠিয়ে তা পর্যালোচনার জন্য জমা দিতে বলা হচ্ছে। হেল্প সেন্টারে গিয়ে ‘সাবমিট অ্যান আপিল’ লিংকে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় তথ্য দিলে তা পর্যবেক্ষণে রাখছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। গত বৃহস্পতিবার ভুয়া অ্যাকাউন্ট বন্ধের বিষয়ে একটি বার্তার মাধ্যমে ঘোষণা দেয় ফেসবুক।

ফেসবুকের প্রটেক্ট অ্যান্ড কেয়ার টিমের কারিগরি প্রোগ্রাম ব্যবস্থাপক শবনম শেখ এক ব্লগ পোস্টে বলেছেন, বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া, সৌদি আরবসহ অন্যান্য কয়েকটি দেশ থেকে আসা ভুয়া লাইক ও মন্তব্য ঠেকাতে এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। দেখা গেছে, অ্যাকাউন্ট তৈরির পরিবর্তে যৌথভাবে লাইক সংগ্রহ করার নেটওয়ার্ক পরিচালনা করা হয়। প্রক্সি ব্যবহার করে অবস্থান লুকানো হয়।

শবনম শাইক আরও জানান, ভুয়া অ্যাকাউন্ট তৈরি করে বিভিন্ন প্রতারণা করা হচ্ছে। ভুয়া অ্যাকাউন্টগুলো বিভিন্ন ফেসবুক পেজে  প্রথমে লাইক দেয়। পরে সেসব পেজের বিভিন্ন পোস্টে গিয়ে কমেন্টের মাধ্যমে বিভ্রান্তি ও নিজেদের প্রচারণা (স্প্যামিং) চালায়। এ কারণেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ওই অ্যাকাউন্টগুলোর মাধ্যমে বিভিন্নভাবে  গুজব, মিথ্যা তথ্য ও ভুল খবর ছড়ানো হয় বলে জানিয়েছেন ফেসবুকের ওই কর্মকর্তা।

তিনি জানান, বাংলাদেশ, সৌদি আরব ও ইন্দোনেশিয়াসহ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে ভুয়া অ্যাকাউন্টের আধিক্য দেখা গেছে।

শাইক বলেন, ‘একজন বাস্তব জীবনে যেমন আচরণ করে ফেসবুকেও তার প্রতিফলন ঘটে। তবে ভুয়া অ্যাকাউন্টগুলো ব্যতিক্রম।’ তারা স্পামিংয়েই ব্যস্ত থাকে। উদাহরণ হিসেবে ফ্রান্সে ৩০ হাজার ভুয়া অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার কথা জানিয়েছেন শাইক।

ফেসবুকের দাবি, তাদের সিস্টেম অবৈধ কার্যক্রম পরিচালনার সঙ্গে যুক্ত বিশাল একটি গ্রুপকে শনাক্ত করেছে এবং বিশাল ভুয়া লাইক সরিয়ে ফেলেছে। তারা সহযোগীদের কাছ থেকেও সন্দেহজনক কার্যক্রমে যুক্ত অ্যাকাউন্ট শনাক্তে সাহায্য পেয়েছে। ভুয়া অ্যাকাউন্ট সরানোয় যেসব পেজে ১০ হাজারের বেশি লাইক আছে, তাতে ৩ শতাংশ লাইক কমবে।

গেল মার্চে সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত বৈঠকে তারানা হালিম জানান, বাংলাদেশে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের পরিচয় নিশ্চিত করার ব্যাপারে ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে তাগিদ দেয়া হয়েছে। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এতে রাজি হয়ে তাদের কাছে কোনো থাকলে তা বাংলাদেশ সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগকে সরবরাহ করবে বলে জানায়। এতে নারী-শিশু ও জঙ্গি ইস্যুগুলো সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে বলে ফেসবুক জানায়।

এর পর পরই সিঙ্গাপুরে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ভুয়া ফেসবুক ব্যবহারকারীদের বিষয়ে কথা বলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক।

সবশেষ, গেল ১০ মার্চ বিকেলে একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে লাইভে কথা বলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। সেখানে অপু বিশ্বাস শাকিব খানের সঙ্গে তার বৈবাহিক সম্পর্কের কথা ফাঁস করেন। এবং অপু জানান, তার সন্তান আব্রাহাম খান জয়ের বাবা শাকিব খান।

শাকিব ও অপুর ছেলে আব্রাহামের নামে ওই দিনই ২৪ ঘণ্টায় প্রায় ৫০টির মতো ভুয়া ফেসবুক পেজ খোলা হলে বিষয়টি আবারও গুরুত্বের সঙ্গে আমলে নেয় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -