‘ঈদের আগ মুহূর্তে শ্রমিকদের সঙ্গে প্রতারণা করে মালিকেরা’

নিজস্ব প্রতিবেদক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: ঈদের আগ মুহূর্তে শ্রমিকরা যখন স্বজনদের সাথে মিলিত হওয়ার জন্য উদগ্রিব হয় তখন গার্মেন্টস মালিকরা শ্রমিকদের বেতন-বোনাস না দিয়ে প্রতারণা করে বলে অভিযোগ করেছেন শ্রমিক-কর্মচারী ঐক্য পরিষদ (স্কপ)।

বাজেটে শ্রমিক স্বার্থ নিশ্চিত ও আগামী ২০ রোজার মধ্যে সকল শ্রমিকদের বেতন-বোনাসসহ প্রাপ্য সব পাওনা পরিশোধের দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি। এর পাশাপাশি তারা পোশাক শ্রমিকদের আবাসন-চিকিৎসা-রেশনিংয়ের জন্য বাজেটে বিশেষ বরাদ্দ এবং আশুলিয়ায় মজুরি আন্দোলনে শ্রমিক নেতাদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারেরও দাবি জানান।

রবিবার (১১ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শ্রমিক-কর্মচারী ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিলে এ দাবি জানান তারা।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘প্রতি বছর রোজার শুরুতে শ্রম মন্ত্রণালয় মালিকদের সাথে বৈঠক করে সব পোষাক শিল্প শ্রমিকের বেতন-ভাতা পরিশোধের আশ্বাস দেয়। কিন্তু মালিকরা ঈদের ছুটির পূর্ব মুহূর্ত পর্যন্ত শ্রমিকদের বোনাস-বেতন পরিশোধ না করে শ্রমিকদের জিম্মি করে। ঈদের আগ মুহূর্তে শ্রমিকরা যখন স্বজনদের সাথে মিলিত হওয়ার জন্য উদগ্রিব হয় তখন মালিকরা শ্রমিকদের বোনাস না দিয়ে বকশিশ হিসাবে কিছু টাকা দিয়ে আর আংশিক বেতন দিয়ে শ্রমিকদের সাথে প্রতারণা করে।’

তারা বলেন, ‘শ্রমিকদের তখন প্রতিবাদ করার কোনো সুযোগ থাকে না । প্রতিবাদ করলেও উৎসবের পূর্বে আইনশৃঙ্খলার অজুহাতে সরকার মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় না।’

বক্তারা আরও বলেন, ‌‘লাখ লাখ গার্মেন্টস শ্রমিকের ঘামের বিনিময়ে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জিত হচ্ছে। অথচ জাতীয় বাজেটে সেই শ্রমিকদের আবাসন, চিকিৎসা, খাদ্য নিরাপত্তার জন্য কোনো সুনির্দিষ্ট বরাদ্দ রাখা হয়নি। সরকার একদিকে মালিকদের স্বার্থ রক্ষায় শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির আন্দোলনকে পুলিশ দিয়ে দমন করছে অন্যদিকে এই শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে রাষ্ট্রীয় কোনো বরাদ্দ রাখছে না। যা সামাজিক বৈষম্যকে আরও ত্বরান্বিত করবে।’  

সমাবেশে ঘোষণাপত্র পাঠ করেন ঐক্য পরিষদের যুগ্ম সমন্বয়কারী ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের আহ্বায়ক শহীদ উল্লাহ চৌধুরী, স্কপের কেন্দ্রীয় নেতা ফজলুল হক মন্টু, আনোয়ার হোসেন।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -