আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ পাশে থাকবে : প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুদ্ধবিদ্ধস্ত আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় দেশটির পাশে থাকার অঙ্গীকার কথা পুনর্ব্যক্ত করেছেন।
 
রবিবার সকালে জাতীয় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আফগানিস্তানের রাষ্ট্রদূত আবদুল রহিম ওরাজ বিদায়ী সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি (প্রধানমন্ত্রী) বলেন, ‘আফগানিস্তানের সঙ্গে আমাদের এক ঐতিহাসিক ও চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে । আমরা আমাদের সমর্থন অব্যাহত রাখব এবং আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় আমরা পাশে থাকব।’ বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।
 
মুসলিম দেশগুলোতে সন্ত্রাসী কার্যক্রমের সমস্যার কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এর প্রতিরোধে অগ্রগতি হচ্ছে। এ ব্যাপারে শেখ হাসিনা সন্ত্রাস ও মৌলবাদের বিরুদ্ধে তার সরকারের ‘জিরো টলারেন্স নীতির’কথা পুনরায় উল্লেখ করেন।
 
শেখ হাসিনা আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে তার বৈঠকের কথা স্মরণ করে বলেন, তারা ওই বৈঠকে বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে মতবিনিময় করেছেন।
 
শেখ হাসিনা বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছেন এবং তার মূল লক্ষ্য ছিল দেশের ব্যাপকসংখ্যক মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা। তিনি বলেন, ‘আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি এবং যে কারণে আমরা গ্রামীণ জনগণের উন্নয়নে গুরুত্ব দিয়ে যাচ্ছি।’
 
শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়নের উচ্ছ্বাসিত প্রশংসা করে রহিম ওরাজ বলেন, ‘জনগণ আপনার নেতৃত্ব চায়। আপনি অনেক সমস্যার সমাধান করেছেন, যা উন্নয়নশীল দেশসমূহের মুখোমুখি হতে হয়।’
 
আফগান কূটনীতিক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর সম্মান প্রদর্শন করেন এবং বলেন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি একজন ছাত্র ছিলেন।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -