ডিজিটাল বাংলাদেশের উৎকৃষ্ট উদাহরণ প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: ডিজিটাল বাংলাদেশের প্রবক্তা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে সত্যি সত্যি ডিজিটালি এগিয়ে নিতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। দেশ কিংবা বিদেশ যেখানেই অবস্থান করেন না কেন তিনি সার্বক্ষণিক নিজের কার্যালয়ের সঙ্গে ডিজিটালি সংযুক্ত থাকেন। ইতোপূর্বেও তিনি নিজের কাজের মাধ্যমেই ডিজিটাল বাংলাদেশের শ্লোগানকে বাস্তবায়ন করে দেখিয়েছেন। আবারও তিনি তা করে দেখালেন। গত ১৭ দিনে বিদেশে অবস্থানরত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মোট ৭১টি জরুরি ফাইল ছেড়েছেন। এর মধ্যে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিয়ে তার আমেরিকা অবস্থানের মোট ১৬দিন তিনি মোট ৬১টি জরুরি ফাইল ছাড়েন। এরপর দেশে ফেরার উদ্দেশ্যে আমেরিকার ওয়াশিংটন থেকে রওনা হয়ে গতকাল মঙ্গলবার যুক্তরাজ্যে পৌঁছানোর পর আরও ১০টি ডিজিটাল মাধ্যমে জরুরি ই-ফাইল ছেড়েছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ সময় গতকাল মঙ্গলবার সকালে (ওয়াশিংটন সময় সোমবার রাত সোয়া ১০টায়) যুক্তরাষ্ট্রে তার ১৬ দিনের সরকারি সফর শেষে লন্ডন হয়ে দেশে ফেরার উদ্দেশ্যে ওয়াশিংটন ত্যাগ করেন।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম লন্ডন থেকে আজ বুধবার সকালে টেলিফোনে গণমাধ্যমকে জানান, প্রধানমন্ত্রী লন্ডন থেকে মঙ্গলবার ১০টি গুরুত্বপূর্ণ ইলেকট্রনিক ফাইল (ই-ফাইল) ছেড়েছেন। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মোট ৬১টি ই-ফাইল ছেড়েছেন।

প্রেস সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যে অবস্থানকালে জরুরি ফাইল তার কাছে পাঠানোর জন্য তিনি আগেই তার অফিসকে নির্দেশনা দিয়েছিলেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের ডিজিটালাইজেশনের সুবাদে তার নির্দেশনা অনুসরণ করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জরুরি ফাইলগুলো ই-মেইলের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠিয়ে দেন।

ইহসানুল করিম আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী লন্ডনে অবস্থানকালে ঢাকায় তার অফিসের সঙ্গে সার্বক্ষণিক ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রাখছেন এবং বিভিন্ন বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিচ্ছেন। তিন দিন লন্ডনে অবস্থানের পর প্রধানমন্ত্রী ৭ অক্টোবর দেশে ফিরবেন।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭২তম (ইউএনজিএ) অধিবেশনে যোগদানের লক্ষ্যে শেখ হাসিনা গত ১৭ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্ক পৌঁছান। নিউইয়র্কে ইউএনজিএ অধিবেশনে যোগদানের পরে তিনি ২২ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটন পৌঁছান।

ওয়াশিংটনে এক সপ্তাহ অবস্থান শেষে লন্ডন হয়ে গত ২ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা ছিল। তবে ২৫ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটনের একটি হাসপাতালে প্রধানমন্ত্রীর গলব্লাডারে অস্ত্রোপচার হওয়ায় এই তারিখ পরিবর্তিত হয়।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -