‘জটিলতার সমাধান না হলে হজ ফ্লাইটে জটিলতা বাড়বে’

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: ভিসা ও অন্যান্য কারণে হজ ফ্লাইট জটিলতা দু'একদিনের মধ্যে সমাধান না হলে আরও সমস্যা সৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।
বুধবার সচিবালয়ে হজযাত্রী পরিবহন নিয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে মন্ত্রী এ কথা জানান।
মন্ত্রী বলেন, 'যাত্রী সংকটে এ পর্যন্ত বিমানের ১২টি ও সৌদি এয়ারলাইন্সের তিনটি হজ ফ্লাইট বাতিল হয়েছে।'
তিনি আরও বলেন, 'এতে বিমানের ক্যাপাসিটি লস হয়েছে ৫ হাজার ৩৮০ জন, সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের লস হয়েছে এক হাজার ২০০ জন।'
মন্ত্রী আরও বলেন, 'হজের সমস্যা নিয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয়ে সভা হয়েছে। সমস্যাগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য,  সৌদি সরকার মোয়াল্লেম ফি বাড়িয়েছে। আগে ছিল ১২শ’ রিয়াল থাকলেও এবার ১৫শ’ রিয়াল করা হয়েছে। এ সমস্যা ৯১টি এজেন্সির। এ সমস্যা অনেকটা কেটে গেছে। এছাড়া হজ প্যাকেজ ঘোষণার পর এবার সৌদি সরকার ঘোষণা করেছে, ২০১৫ ও ২০১৬ সালে যারা হজ করেছেন তাদের দুইশ রিয়াল অতিরিক্ত দিতে হবে। এ সমস্যার করণে দেখা গেছে সর্বোচ্চ সাত হাজার হাজির সমস্যা হবে। কিন্তু মোয়াল্লেম ফি বাড়ানোর কারণে ১৭ হাজার হাজির সমস্যা হবে।  আমরা আশা করছি এ সমস্যা কেটে যাবে।'
বিমানমন্ত্রী বলেন, 'যেখানে ভিসা হয়েছে ৪৬ হাজার ৭৯২ জন, সেখানে হাজী গেছেন ২৯ হাজার ৮৩৯ জন। ১৭ হাজার হাজী যাদের যাওয়ার কথা ছিল তারা যেতে পারেননি। এখন জেদ্দায় আমাদের অবশিষ্ট যে হাজী পরিবহন করতে হবে তার সংখ্যা প্রায় ৪৭ হাজার ৭৬১ জন। বিমান ও সৌদি এয়ারলাইন্স মিলে এই পরিবহন করতে হয়। আমার চাই নির্বিঘ্নে এ পরিবহন সম্পন্ন হোক।'
২৬ আগস্ট বিমান ও ২৮ আগস্ট সৌদি এয়ালাইন্স সৌদি আরব যাওয়ার শেষ ফ্লাইট পরিচালনা করবে বলেও জানান তিনি।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -