রোহিঙ্গা নির্যাতনের কড়া প্রতিবাদ বাংলাদেশের

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর ব্যাপক সহিংসতা ও চলমান সেনা অভিযানের কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ। বুধবার (৬ সেপ্টেম্বর) ঢাকায় দেশটির উপ-রাষ্ট্রদূত অং মিন্টকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করে এ প্রতিবাদ জানানো হয়।

এ সময় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া উইংয়ের মহাপরিচালক মঞ্জুরুল করিম খান চৌধুরী মিয়ানমারের দূতকে বাংলাদেশের ‘প্রটেস্ট নোট’দেন।

একইসঙ্গে নির্যাতনের মুখে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফেরত নেয়ার দাবি জানায় বাংলাদেশ।

আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক ও মানবাধিকার সংগঠনগুলো বলছে, গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে অভিযান শুরু করে দেশটির সেনাবাহিনী। রোহিঙ্গাদের হত্যা করে বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেয়। প্রাণভয়ে হাজার হাজার রোহিঙ্গা সীমান্ত পেরিয়ে প্রতিবেশী বাংলাদেশে ঢুকতে থাকে। তবে মিয়ানমার সরকার বলছে, এই ঘটনার জন্য ‘রোহিঙ্গা জঙ্গিরা’ দায়ী।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, ২৫ আগস্ট রাখাইন রাজ্যে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর বেশ কয়েকটি চৌকিতে হামলা হয়েছে। এই সব হামলার জন্য রোহিঙ্গাদের দায়ী করে চালানো সেনা অভিযানে কমপক্ষে ৪০০ রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে।

কক্সবাজার সীমান্তে থাকা জাতিসংঘের কর্মীদের হিসাবমতে ২৫ আগস্টের পর  প্রায় ১ লাখ ২৫ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশে ঢুকেছে।এর আগে গত বছরের অক্টোবরেও রাখাইনে সহিংসতার পর বিপুলসংখ্যক রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে ঢোকে।

রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের তীব্র নিন্দা জানিয়ে গত শুক্রবার বিবৃতি দিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। তিনি একে গণহত্যা বলে উল্লেখ করেন। বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদকে ফোন করে তিনি রোহিঙ্গাদের আশ্রয়ের ব্যাপারে বাংলাদেশকে সহায়তার অঙ্গীকার করেন।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -