অঝোর ধারা টানা বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে রোহিঙ্গাদের ঘর

টেকনাফ, বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: অঝোর ধারায় বৃষ্টি। বৃষ্টির পানিতে ভাসছে চারপাশ। প্রত্যেকের কোলে ছোট ছোট শিশু। সারা রাত বৃষ্টিতে ভিজে জবুথবু। চিৎকার করার শক্তিও নেই। ক্যাম্প থেকে রাস্তায় উঠার একমাত্র বাঁশের সাঁকোটি ভেঙে গেল। কয়েকজন রোহিঙ্গা নারী আটকা পড়লেন। তারা পার হতে পারলেন না। রাস্তায় উঠতে না পেরে কান্না শুরু করলেন। স্খানীয় নারীরাই তাদের উদ্ধার করলেন।
বৃষ্টির ভোগান্তি আর জলাবদ্ধতা যেন পিছু ছাড়ছে না বালুখালির রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মানুষগুলোর। আবারো টানা বৃষ্টিতে দুঃসহ দুর্ভোগ নেমে এসেছে তাদের মাঝে। খোলা আকাশের নিচে অসহায় বসে থাকা ছাড়া আর কী'ইবা করার আছে এসব রোহিঙ্গাদের। বৃষ্টির পানিতে তীব্র ঠান্ডায় অসুস্থ হয়ে যাচ্ছে ক্যাম্পের শিশুরা।

মিয়ানমারের সেনা অভিযানের মুখে ৪ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। অস্থায়ী শিবিরে এসব শরণার্থীরা যথাযথ নিরাপত্তা, বিশুদ্ধ পানি এবং স্যানিটেশন ছাড়াই মানবেতর জীবন যাপন করছে। বৃষ্টি শরণার্থীদের দুভোর্গকে আরো কয়েক গুন বাড়িয়ে দিয়েছে।

প্রবল বৃষ্টির কারণে কয়েকটি ক্যাম্পে বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। ফলে শরণার্থীরা নতুন এলাকায় চলে যেতে বাধ্য হচ্ছে। গত বছরের অক্টোবর মাসের সহিংসতা থেকে পালিয়ে আসা হাজার হাজার রোহিঙ্গা ইতিমধ্যে এই বালাখালিতে বাস করছেন।

ভুক্তভোগী রবিউল ইসলাম জানান, ‘ত্রাণে পাওয়া একটি ত্রিফল টাঙিয়ে ঝঁপরি তৈরি করেছিলাম। সেটি বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে। ঘুমানোর জন্য কোনো জায়গা নেই। চরম দুর্ভোগে আছি।’

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -