একমাসের ছুটিতে প্রধান বিচারপতি

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: ব্যক্তিগত অসুস্থতার কারণে দেখিয়ে একমাসের ছুটি চেয়ে রাষ্ট্রপতি বরাবর আবেদন করেছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।   

বিষয়টি সুপ্রিম কোর্ট সূত্রে জানা গেছে।

ফলে আগামীকাল থেকে প্রধান বিচারপতির আসনে বসছেন না সিনহা।  এ বিষয়ে রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, ‘যেহেতু উনি ছুটির আবেদন করেছেন, ফলে সংবিধান অনুযায়ী পরবর্তী জেষ্ঠ্য বিচারপতি আব্দুল ওয়াহাব মিয়া প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব পালন করবেন।’

কেন হঠাৎ প্রধান বিচারপতি এতদিনের ছুটির আবেদন করলেন। সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, ‘একজনের ব্যক্তিগত সুবিধা-অসুবিধা থাকতেই পারে। তবে উনি বিদেশ থেকে ফেরার পর আমার সঙ্গে এখনও দেখা হয়নি। কেন তিনি এ ছুটির আবেদন করেছন তা আমি বলতে পারছি না।’  

উল্লেখ্য, কানাডা ও জাপান সফর শেষে গত ২৪ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। এর আগে ৮ সেপ্টেম্বর রাতে অসুস্থ মেয়েকে দেখতে কানাডায় যান সিনহা। সেখান থেকে তিনি ‘কনফারেন্স অব চিফ জাস্টিস অব এশিয়া অ্যান্ড দ্য প্যাসিফিক’ সম্মেলনে যোগ দিতে ১৮ সেপ্টেম্বর জাপানে যান প্রধান বিচারপতি । তখন তাঁর অনুপস্থিতিতে প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব পালন করেন আপিল বিভাগের সিনিয়র বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহাব মিঞা।

এদিকে চলমান সুপ্রিম কোর্ট অবকাশ শেষে আগামী ৩ অক্টোবর প্রধান বিচারপতি এবং সুপ্রিম কোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হওয়ার কথা রয়েছে আইনজীবীদের।

সম্প্রতি বিচারপতি নিয়োগের ক্ষমতা সংসদের কাছ থেকে আদালতের হাতে এনে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী ‘অবৈধ’ ঘোষণা করে প্রধান বিচারপতির দেয়া রায়কে অযৌক্তিক, আবেগী ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে মন্তব্য করে সংসদীয় কমিটি। এ রায়কে বিতর্কিত বলেও উল্লেখ করেন সরকারের এমপি-মন্ত্রীরা। বিপরীতে ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়কে শুরু থেকেই ‘ঐতিহাসিক’ আখ্যা দিয়ে আসছে বিএনপি।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -