প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাধবদীর চার শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পানিতে পড়ে ৪ শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১৭ আগস্ট) বিকেল ৪টার দিকে মাধবদী ও আড়াইহাজার সিমান্তবর্তী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলো আশিকুর রহমান পাভেল (২৪), শরিফুল ইসলাম তুষার (২৩), আরফান আহম্মেদ লিমন (২৩) ও অভি (২২)  । এরা সবাই ঢাকার বিভিন্ন বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিল।
জানfযায়, মাধবদী থেকে ৪ বন্ধু প্রাইভেট কার যোগে ঢাকা যাচ্ছিলেন। ঢাকা-সিলেট মহা সড়কে কান্দাইল এলাকায় পৌঁছলে হঠাৎ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাদের প্রাইভেটকারটি উল্টে গিয়ে রাস্তার পাশের এক ডোবায় পড়ে ডুবে যায়। এসময় নিরুপায় লোকজন রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে এ দৃশ্য দেখতে থাকে। খবর পেয়ে মাধবদীর দমকল বাহিনী  ঘটনাস্থলে পৌছে এলাকাবাসির সহযোগীতায় প্রায় আধা ঘন্টা পর প্রাইভেটকারটি পানি থেকে টেনে উপরে তুলে আনেন। এসময় তুষারকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। বাকী ৩ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতাল ও পরে ঢাকার অ্যাপোলো হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে মৃত ঘোষনা করেন। মহাসড়কে একজন শিক্ষার্থীকে বাঁচাতে গিয়ে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করে মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ ইলিয়াছ জানান, নিহতদের মধ্যে আশিকুর রহমান পাভেল নরসিংদী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও এম,এম, কে ডাইং এর মালিক আলহাজ্ব মোমেন মোল্লার ছেলে, লিমন একই এলাকার রশিদ মেম্বারের ছেলে এবং অভি রশিদ মেম্বারের ভাগিনা। নিহত পাভেল নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ ফাইনাল ইয়ারের ছাত্র এবং শরিফুল ইসলাম তুষার ইন্ডিপেন্ডেন্টে ইউনিভার্সিটির ছাত্র ও লিমন বিজিএমইএ ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী ছিল। নিহতদের সবার বাড়ি মাধবদীর ভগীরথপুর এলাকায় বলে জানা গেছে।

১৭ আগস্ট ২০১৬ /বিকে-আল-আমিন সরকার/খন্দকার শাহিন/মুহাম্মদ নুর আলম-

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It