যানজটে নাকাল রাজধানী

নিজস্ব প্রতিবেদক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: রমজানের শুরু থেকেই তীব্র যানজট শুরু হয় রাজধানীতে। রমজানের সপ্তম দিনে রাজধানীর রামপুরা- বাড্ডা সড়ক সর্বত্রই যানজট ছিল। স্থবির রাস্তায় অস্বস্তি আর ভোগান্তি নিয়ে যানবাহনে বসে থাকতে দেখা গেছে সাধারণ যাত্রীদের। যানজটের কারণে বিপাকে পড়েন ঘরমুখী সাধারণ মানুষ। যানজট আর গরমে বাসের মধ্যে যাত্রীদের নাস্তানাবুদ অবস্থা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, রাজধানীর বসুন্ধরা গেট থেকে মালিবাগ আবুল হোটেল পর্যন্ত গাড়ির দীর্ঘ সারি, রামপুরা, বাড্ডা, নতুন বাজার এলাকার সড়কগুলোয় তীব্র যানজট ছিল। রাস্তায় উভয় পাশে গাড়ির চাপ দেখা যায়। ভ্যাপসা গরম আর যানজটে যাত্রীরা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েন।

সুপ্রভাত বাসের যাত্রী সেজান মাহমুদ জানান, রাড্ডা রামপুরা রুটের রাস্তায় তিনি নিয়মিত চলাচল করেন। প্রতিদিনই তাকে বাসের মধ্যে বসে থাকতে হয়। এই রাস্তায় রমজানের আগের দিন থেকে এরকম পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের জন্য এমনিতেই রাস্তাঘাটের বেহাল দশা। আর এ রমজানের বাড়তি গাড়ির চাপে রাস্তায় চলাচল কঠিন হয়ে পড়েছে।

নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সালাম জোবায়ের জানান, ক্লাস শেষে বাসায় ফিরতে বাসে উঠেছি। প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে বাসে বসে আছি। রাস্তার দুই পাশেই গাড়ির চাপ থাকায় সামনে দিকে বাসগুলো যেতে পারছে না। রোজা রেখে রাস্তায় যানজট বসে থেকে রীতিমতো অসহ্য লাগছে।

বাড্ডা লিংক রোডে দায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্ট মাসুদ রানা জানান, রাস্তার উভয় পাশে খোঁড়াখুঁড়ির কারণে যানজট হচ্ছে। প্রগতি স্মরণী রাস্তায় কয়েক মাস ধরে চলা স্যুয়ারেজ লাইন বসানোর কারণে রাস্তা বন্ধ। যার ধারাবাহিকতা রমজানে প্রচুর যানজট হচ্ছে। রাস্তা বন্ধ থাকার কারণে একই রাস্তায় উভয় দিকের গাড়ি চালানো হচ্ছে। এ কারণে যানজট লাগলে সহজে পরিস্কার হয় না।

কাকরাইল মোড়ে আজমেরী বাসের চালক নুরুল মিয়া বলেন, রমজানে ঢাকায় যানজট একটু বেশি থাকে। কিন্তু এ বছর শহরের অধিকাংশ সড়কে খোঁড়াখুঁড়ি করার কারণে রাস্তা সরু হয়ে গেছে। তাই গাড়ি চলাচলে সমস্যা হচ্ছে।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -