বোর্ডের সঙ্গে রফাদফা, বাংলাদেশে আসছে অস্ট্রেলিয়া

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: বেশ কিছু দিন ধরেই ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সেঙ্গ দেশটির ক্রিকেটারদের চুক্তি সংক্রান্ত বিষয়ে ঝামেলা হয়ে আসছিল। অবশেষে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে অজি ক্রিকেটারদের চুক্তি সংক্রান্ত চলমান সংকটের অবসান হয়েছে। তাই নির্ধারিত সময়েই হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ সফর। বৃহস্পতিবার সকালে মেলবোর্নে মুখোমুখি বৈঠকের শেষ ধাপে এসে ক্রিকেটারদের সঙ্গে চুক্তি করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) এবং অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারদের সংগঠন (এসিএ) দীর্ঘস্থায়ী বেতন কাঠামো নিয়ে চলমান বিরোধ নিষ্পত্তিতে একটি চুক্তিতে পৌঁছেছে। যার কারণে পেশাদার ক্রিকেটারদের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ডের পুনরায় চুক্তি করার পথ তৈরি হয়েছে। তাই শঙ্কা কাটিয়ে নির্ধারিত সময়েই বাংলাদেশে আসছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল।

মেলবোর্নে বৃহস্পতিবার সকালে মুখোমুখি আলোচনার শেষে ধাপে এসে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান অ্যালিস্টার নিকোলসন।

প্রাথমিকভাবে এই চুক্তির বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি। তবে বৃহস্পতিবার বিকালে এই চুক্তি এবং নতুন পাঁচ বছরের স্মারকলিপি প্রকাশ করা হবে।

এই সপ্তাহে শেষ না হলে সংকট গড়াতে পারত সালিশি আদালতে তবে শেষ পর্যন্ত আদালতে গড়াল না ক্রিকেট। সমাধান মিলল টেবিলেই। মুখোমুখি আলোচনার চূড়ান্ত ধাপে দুপক্ষের মত গিয়ে মিলল এক বিন্দুতে। সুরাহা হলো ৯ মাস ধরে চলে আসা সংকটের।

মূলত বেতন-ভাতার কাঠামো বদলাতে চাওয়াতেই সংকটের শুরু। দুই যুগ ধরে চলে আসা কাঠামো অনুযায়ী বোর্ডের রাজস্ব আয়ের একটা অংশ ভাগ করে দেয়া হতো অস্ট্রেলিয়ার কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা ক্রিকেটারদের ও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের। এবার সেটিতে খানিকটা বদল আনতে চেয়েছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

জাতীয় ক্রিকেটারদের লভ্যাংশ বাড়িয়ে ঘরোয়া ক্রিকেটারদের এটির বাইরে রাখার প্রস্তাব করা হয়েছিল। সে অর্থ বোর্ড খরচ করতে চেয়েছিল তৃণমূল ক্রিকেটে। কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেটারদের স্বার্থ রক্ষায় একাট্টা হন জাতীয় ক্রিকেটাররা। দুই পক্ষে অনড় মনোভাবে ঘনীভূত হয় সংকট।

গত মাসে ‘এ’ দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বয়কট করেন ক্রিকেটাররা। চুক্তি না হলে দল বাংলাদেশ সফরেও জানবে না বলে সাফ জানিয়ে দেয়া হয়। হুমকিতে পড়ে যায় সামনের ভারত সফর ও অ্যাশেজও। এদিকে সময় পেরিয়ে যাওয়ায় বাড়তে থকে স্পন্সরদের চাপও। বলা হচ্ছিলো, নিকট অতীতে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় সংকট এটিই।

শেষ পর্যন্ত মিলল সমাধান। বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গনেও আছড়ে পড়ছে স্বস্তির ঢেউ। দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে স্টিভেন স্মিথের দল আসবে ১৮ অগাস্ট। তার আগে ১০ অগাস্ট থেকে প্রস্তুতি ক্যাম্প করবে তারা ডারউইনে, যেখানকার কন্ডিশন খানিকটা উপমহাদেশের কাছাকাছি বলে মনে করা হয়।

FacebookTwitterDiggStumbleuponRedditLinkedinPinterest
Pin It
এই পাতার আরো খবর -