1. azadkalam884@gmail.com : A K Azad : A K Azad
  2. bartamankantho@gmail.com : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  3. cmisagor@gmail.com : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  4. hasantamim2020@gmail.com : হাসান তামিম : হাসান তামিম
  5. khandakarshahin@gmail.com : Khandaker Shahin : Khandaker Shahin
শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ০২:২৯ পূর্বাহ্ন




ইউপি নির্বাচন গৌরীপুরে ককটেল বিস্ফোরণ ও ভাংচুরের ঘটনায় আসামী ১৯৯ জন, গ্রেফতার-৭

মো. হুমায়ুন কবির, ময়মনসিংহ ।
  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২১

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার মইলাকান্দা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী জোসেফ উদ্দিন জর্জের নির্বাচনী অফিসে ককটেল বিস্ফোরণ ও ভাংচুরের ঘটনায় প্রতিদ্বন্দী স্বতন্ত্র প্রার্থী রিয়াদুজ্জামান রিয়াদের ১৯৯ জন সমর্থকদের নামে মামলা হয়েছে। রবিবার রাতে এ ইউনিয়নের সূর্য্যাকোনা গ্রামের মোঃ মঞ্জুর আলী বাদী হয়ে গৌরীপুর থানায় এ মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় ৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) দুপুরে এ উপজেলার মইলাকান্দা ইউনিয়নে গোবিন্দপুর বাজারে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী জোসেফ উদ্দিন জর্জ (নৌকা) ও বিএনপি নেতা সতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান রিয়াদুজ্জামান রিয়াদের (আনারস) সমর্থকদের মাঝে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। এসময় দফায় দফায় ককটেল বিস্ফোরণসহ নির্বাচনী অফিস, মটর সাইকেল ও বেশ কয়েকটি দোকান ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এর আগেরদিন রাতে মেছিডেঙ্গী বাজারের রিয়াদুজ্জামান রিয়াদের নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করা হয় ও গোবিন্দপুর বাজারে নৌকার নির্বাচনী অফিসের সামনে বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় দুর্বৃত্তরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এদিন তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী হাসান মারুফ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌরীপুর সার্কেল শেখ মোস্তাফিজুর রহমান ও গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ খান আব্দুল হালিম সিদ্দকী।

স্থানীয় প্রত্যক্ষ্যদর্শীরা জানান, শনিবার দুপুরে রিয়াদুজ্জামান রিয়াদের শত শত সমর্থক আনারস মার্কার মিছিল নিয়ে গোবিন্দুপর বাজারের রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন। এসময় পাশ^বর্তী নৌকার নির্বাচনী অফিস থেকে জোসেফ উদ্দিন জর্জের সমর্থকরা লাঠিসোটা নিয়ে ধাওয়া করে মিছিলটিকে ছত্রভঙ্গ করে দেন। এদিকে রিয়াদুজ্জামান রিয়াদের সমর্থকরা ধাওয়া খেয়ে তাৎক্ষণিক সুসংগঠিত হয়ে জোসেফ উদ্দিন জর্জের সমর্থকদের পাল্টা ধাওয়া করে। রিয়াদুজ্জামান রিয়াদের সমর্থকরা এসময় ক্ষিপ্ত হয়ে নৌকার নির্বাচনী অফিস, বেশ কয়েকটি দোকান ও একটি মটর সাইকেল ভাংচুর করে। এতে উভয়পক্ষের বেশ কয়েজন আহত হন। দু’পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়াকালে দফায় দফায় কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ হয়েছে বলে জানান প্রত্যদর্শী কয়েকজন।

এদিকে উল্লেখিত দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে চরম উত্তেজনাকে কেন্দ্র করে সাধারণ মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। যেকোন সময় দু’পক্ষের মাঝে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের সম্ভাবনা রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন অনেকেই।

উপজেলা মৎস্যজীবী লীগের আহবায়ক ন্থানীয় মোঃ কামাল হোসেন জানান, ঘটনারদিন দুপুরে রিয়াদুজ্জামান রিয়াদের সমর্থকরা মিছিল সহকারে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নৌকার নির্বাচনী অফিসে হামলা চালায়। এসময় নৌকার নির্বাচনী অফিস, একটি মটর সাইকেল ও বেশ কয়েকটি দোকান ভাংচুর করে তারা। এ হামলায় নৌকার বেশ কয়েকজন সমর্থক আহত হয়েছে বলে জানান তিনি।
তিনি বলেন, এর আগের দিন রাত সাড়ে ৯টার দিকে গোবিন্দপুর বাজারে নৌকার তিনটি নির্বাচনী অফিসে একযোগে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রিয়াদুজ্জামান রিয়াদ জানান, ঘটনার দিন দুপুরে তার আনারস মার্কার সমর্থকরা ভোট প্রার্থনার জন্য গোবিন্দপুর বাজার দিয়ে যাচ্ছিলেন। এসময় বিনা উস্কানীতে নৌকার নির্বাচনী অফিস থেকে একের পর এক ককটেল বিস্ফোরণের মাধ্যমে ভীতি সঞ্চার করে তার সমর্থকদের ধাওয়া করে। এর আগের দিন রাতে মেছিডেঙ্গী লংকার ব্রিজ এলাকায় তার নির্বাচনী অফিসের চেয়ার-টেবিল ভাংচুর করে জোসেফ উদ্দিন জর্জের সমর্থকরা। চার দিন আগে গোবিন্দপুর বাজারে তার নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

রিয়াদুজ্জামান রিয়াদ আরও বলেন, প্রতিদ্ব›দ্বী প্রার্থী জোসেফ উদ্দিন জর্জ তার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে নৌকায় আগুন ধরিয়ে ও নির্বাচনী অফিসের সামনে ককটেল বিস্ফোরণের নাটক সাজিয়ে এর দায় তার উপর চাপানোর অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন। বর্তমানে আনারস মার্কার সমর্থকদের নানা হুমকী প্রদানের পাশাপাশি প্রচারণা ও ভোট প্রার্থনায় বাঁধা দেয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।

জোসেফ উদ্দিন জর্জ জানান, বিএনপি নেতা রিয়াদুজ্জামান রিয়াদ একজন শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার সমর্থকরা উচ্ছশৃঙ্খল প্রকৃতির। ঘটনারদিন রিয়াদের প্রায় ৬/৭শ সমর্থক দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে পরিকল্পিতভাবে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে জনমনে ভীতি সঞ্চার করে গোবিন্দপুর বাজারে নৌকার নির্বাচনী অফিসে হামলা চালায়। এসময় নির্বাচনী অফিসের সাটার, চেয়ার-টেবিল, প্রচারণার মটর সাইকেলসহ আশপাশের বেশ কয়েকটি দোকান ভাংচুর করে তারা।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ খান আব্দুল হালিম সিদ্দিকী জানান, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। উত্তপ্ত পরিবেশ স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন আছে। এ ঘটনায় মোঃ মঞ্জুর আলী বাদী হয়ে ৪৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ১৫০ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এ মামলায় ৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

এই পাতার আরো খবর

প্রধান সম্পাদক:
মফিজুল ইসলাম সাগর












Bartaman Kantho © All rights reserved 2020 | Developed By
Theme Customized BY WooHostBD