1. azadkalam884@gmail.com : A K Azad : A K Azad
  2. bartamankantho@gmail.com : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  3. cmisagor@gmail.com : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  4. hasantamim2020@gmail.com : হাসান তামিম : হাসান তামিম
  5. khandakarshahin@gmail.com : Khandaker Shahin : Khandaker Shahin
শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:১৭ পূর্বাহ্ন




গাজীপুরে মাদক নিরাময় কেন্দ্রে মাদক বিক্রি, মালিক ফিরোজা নাজনীন বাঁধনসহ গ্রেফতার ৫

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক)
  • প্রকাশিত : সোমবার, ১০ জানুয়ারি, ২০২২

বাংলা চলচ্চিত্র থেকে একজন অভিনয়শিল্পী ৯ মাস ধরে উধাও, তাকে কোথাও খুঁজেও পাওয়া যায়নি। এমনকি তার ফোনও বন্ধ ছিলো। সমিতির চাঁদাও দেন না। কিন্তু পিরোজপুরে থাকার সময় জায়েদ খানের মোবাইলে হঠাৎ করে একটি ফোন আসে- ও প্রান্ত থেকে বলে, ভাই আমি অভি, ভাই আমাকে আটকে রেখেছে ৯ মাস উদ্ধার করেন।

সিনেমার মতোই গল্প শোনালেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, আসলে অভি এতোদিন কোথায় ছিল, আমরা খুঁজেছি পাইনি। ওর সমিতির চাঁদাও বাকি ছিল। আমি মা-বাবার কবর জিয়ারত করছিলাম। হঠাৎ করে একটি ফোন আসে। আমি সেই ফোন পেয়ে অবাক হয়ে যাই। অভি ফোন দিয়েছিল। কোথা থেকে ফোন দিয়েছিল জানি না। শুধু বলেছিল তাকে আটকে রেখে ৯ মাস ধরে যৌন নির্যাতন করে এক নারী। আরো অনেককেই নাকি আটকে ছিল।

৫ জানুয়ারি বুধবার সকালে জায়েদ খান গণমাধ্যম কর্মীর কাছে একটি আবেদন পত্রের প্রতিলিপি পাঠিয়ে বলেন, আমি জানতে পারি গাজীপুর ভাওয়াল মাদকাসক্ত কেন্দ্রে অভিকে আটকে রাখা হয়েছে। র‍্যাবকে বিষয়টি লিখিতভাবে জানাই। র‍্যাব অভিযান চালিয়ে গতকাল অভিসহ ২০ জনকে গাজীপুরের ওই মাদকাসক্ত পুনর্বাসন কেন্দ্র থেকে উদ্ধার করে। আমি আইন শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর প্রতি কৃতজ্ঞ।

অভিকে আটকে রেখে যৌন নির্যাতন চালানো হতো ফেসবুকেও এমনটা উল্লেখ করেছেন জায়েদ খান।সেই তিনি পোস্টে বলেন, চিত্রনায়ক অনিক রহমান অভি মাদকাসক্ত না হওয়া সত্ত্বেও দীর্ঘ ৯ মাস শিকল দিয়ে বেঁধে রেখে শারীরিক যৌন নির্যাতন চালাতেন ঐ প্রতিষ্ঠানের মালিক এক নারী। বিষয়টি গোপন সূত্রের ভিত্তিতে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির অভিযোগের প্রেক্ষিতে র‍্যাব অভিযান চালিয়ে সেখানে চিত্রনায়ক অভি’সহ আর ২০ জন উদ্ধার করা হয়েছে। সেখানে জানানো হয়েছে সেই প্রতিষ্ঠানের মালিক পক্ষ অভিযান পরিচালনার সময় মাদকাসক্ত অবস্থায় ছিলেন!

তবে র‍্যাব বলছে ভিন্ন কথা। তারা জানায়, অভি মাদকাসক্ত হয়ে পড়লে তাকে ওই মাদক নিরাময় কেন্দ্রে ভর্তি করানো হয়। র‍্যাব কর্মকর্তা মঈন বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা ২০ জনকে উদ্ধার করেছি। চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে একজনকে উদ্ধার করা হয়েছে। তাকেও মেডিক্যাল টেস্টের জন্য পাঠানো হয়েছে। তাকে এখানে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করা হতো, সে এখান থেকে বের হতে চাইতো তাকে বের হতে দিতো না। কিসের জন্য আটকে রাখা হয়েছিল, আমরা সেই বিষয়টিও দেখছি।

চিত্রনায়ক অনিক রহমান অভি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া অভিনেত্রী পপির সঙ্গে অভিনয় করেছেন সাহসী যোদ্ধা চলচ্চিত্রে, এছাড়াও চটপটি ভালোবাসা, দুষ্টু ছেলে, ভালোবাসা ডটকম সহ অভিনয় করেছেন একাধিক চলচ্চিত্রে।

এই পাতার আরো খবর

প্রধান সম্পাদক:
মফিজুল ইসলাম সাগর












Bartaman Kantho © All rights reserved 2020 | Developed By
Theme Customized BY WooHostBD