সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০২:৩৮ পূর্বাহ্ন

চাঁদপুর হাজীগঞ্জে ধর্ষণের ঘটনা ছিল সম্পূর্ণ গুজব

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম / ০ Views পাঠক
শনিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২১

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে সনাতন ধর্মাবলম্বী একই পরিবারের তিন নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ গুজব বলে দাবি করেছেন প্রশাসন, পুলিশ ও হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতারা।

সনাতন ধর্মের নেতারা বলছেন, একটি মহল সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে ফেসবুকে এমন গুজব ছড়াচ্ছে। এর সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়কে নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে একটি মহল। শনিবার (১৬ অক্টোবর) সকাল থেকে দেশ-বিদেশের একাধিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বলা হচ্ছে হিন্দু সম্প্রদায়ের মা-বোন ও দশ বছরের একটি শিশুকে ধর্ষণ করা হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ১০ বছরের শিশুটি মারা গেছে। মৃত্যুর মুখে রয়েছে তার মাসি (খালা) ও বোন।

মূলত হাজীগঞ্জ উপজেলায় এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। এর সবই গুজব বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ হাজীগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি রোটা. রুহিদাস বণিক। তিনি তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ভিডিও বক্তব্যের মাধ্যমে বিষয়টি গুজব বলে ব্যাখ্যা দিয়েছেন। তিনি এও বলেন, যারা এই ধরনের গুজব ছড়ায় তাদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানাই। সবাইকে এ ধরনের গুজব এড়িয়ে চলার জন্য অনুরোধ জানান।

হাজীগঞ্জ উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সত্য ব্রত ভদ্র মিঠুন বলেন, হাজীগঞ্জ উপজেলার কোথাও হিন্দু সম্প্রদায়ের কোনো পরিবারে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেনি। মন্দিরে হামলা ছাড়া এ ধরনের কোনো ঘটনার খবর আমার কাছে নেই। এগুলো সম্পূর্ণ গুজব। একটি কুচক্রিমহল সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সম্পূর্ণ মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে।

হাজীগঞ্জ থানার আফিসার ইনচার্জ (ওসি) হারুনুর রশীদ বলেন, হাজীগঞ্জে বুধবার রাতে ঘটে যাওয়া ঘটনার পর বিভিন্ন গুজব রটছে। এটিও গুজব। ধর্ষণের বিষয়ে কোনো মামলা বা অভিযোগও নিয়ে কেউ আসেনি। যারা গুজব ছড়াচ্ছে, আমরা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

এদিকে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শোয়েব আহমেদ চিশতী বলেন, হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ধর্ষণ হয়েছে এমন কোন রূগী ভর্তি হয়নি। তার কোনো রেকডর্ও আমাদের কাছে নেই।

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) অঞ্জনা খান মজলিশ বলেন, হাজীগঞ্জের বিষয়টি সম্পূর্ণ গুজব। যারা এই ধরনের গুজব ছড়ানোর অপচেষ্টা করছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ বলেন, সারা হাজীগঞ্জ খুঁজেও আমরা এ ধরনের কোনো সংবাদ পাইনি। এগুলো সম্পূর্ণ গুজব। একটি স্বার্থান্বেষী মহল এসব গুজব ছড়িয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই পাতার আওর সংবাদ