মঙ্গলবার, ০৯ জুলাই ২০২৪, ০৫:০৩ অপরাহ্ন

চৌদ্দ দিনের জন্য বন্ধ সকল যানবাহন, মক্কার মসজিদুল হারাম এবং মদিনার মসজিদে নববীতে মুসল্লিদের উপস্থিতিতে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম / ৮৫ পাঠক
শুক্রবার, ২০ মার্চ, ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্তমানকন্ঠ ডটকম : সারা বিশ্বের ইসলাম অনুসারিদের প্রিয় মক্কার মসজিদুল হারাম এবং মদিনার মসজিদে নববীতে সাধারণ মুসল্লিদের উপস্থিতি সাময়িক স্হগিত করা হয়েছে। পবিত্র হারামাইন কর্তৃপক্ষের মুখপাত্র হানি বিন হোসনি হায়দার বৃহস্পতিবার রাতে এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন যে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কর্তৃপক্ষ করোনার বিস্তৃতি রোধে গৃহীত পদক্ষেপের অংশ হিসেবে আজ শক্রবার থেকে এই স্হগিতাদেশ জারি করেছে।
তিনি হারামাইনের উদ্দেশ্যে আসা মুসলিমদের নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা বিবেচনা করে এই নির্দেশ মেনে চলার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। তিনি আরো বলেন হারামাইন কর্তৃপক্ষ, স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা বিভাগসহ বিভিন্ন কর্তৃপক্ষের সাথে সমন্বয় করে ভবিষ্যতে কিভাবে হারামাইনকে তার মুসল্লীদের জন্য নিরাপদ ও স্বাস্থ্যকর করে প্রস্তুত করা যায় সেই লক্ষে কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। মসজিদ দুইটিতে পাঁচ ওয়াক্ত আজান এবং জামায়াতে নামাজ অব্যাহত থাকবে ইমাম, মুয়াজ্জিন এবং কর্মরতদের নিয়ে। এর আগে মসজিদে নববীর গাড়ী পার্কিং বন্ধ করা হয়েছে ।

এই দিকে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে আগামীকাল শনিবার থেকে সৌদির অভ্যন্তরীণ সমস্ত রুটে বিমান, বাস, ট্যাক্সি ও ট্রেন চলাচল ১৪ দিনের জন্য বন্ধ থাকবে ।

অন্যদিকে একই দিন জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া এক ভাষনে সৌদি বাদশাহ দুই পবিত্র মসজিদের খাদেম, সালমান বিন আব্দুল আজিজ বিন সউদ বলেছেন, আমরা এখন কঠিন দিন পার করছি, সামনে আরো কঠিনতম সময় আসছে। মানুষের নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা দেওয়া আমার প্রথম অগ্রাধিকার ।

তিনি বলেন, সৌদি আরবে অবস্থানরত প্রিয় নাগরিক এবং রেসিডেন্টগন ( মহান আল্লাহ আপনাদের সুস্থ ও নিরাপদে রাখুক) নিশ্চয় আমরা ইতিহাসের এক ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছি। কিন্তু আমরা বিশ্বাস করি, এই সময় চলে যাবে এবং সুদিন আসবে ইনশাআল্লাহ।
আপনাদের প্রিয় এই দেশের পক্ষ হতে বৈশ্বিক মহামারিকে (করোনাভাইরাস) মোকাবেলা করার জন্য সব ধরণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আমি আপনাদের নিশ্চিত করতে চাই যে এই পবিত্র ভূমি আপনাদের ঔষধ চিকিৎসা ও খাদ্যের পর্যাপ্ত পরিমাণ ব্যবস্থা করছে। সকল সরকারি প্রতিষ্ঠান অবশ্যই তাদের সর্বাগ্রে স্বাস্থ্য বিভাগ প্রত্যেকটি নাগরিক এবং অভিবাসীদের চিকিৎসার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে আসছে। সরকারি প্রতিষ্ঠান সহ এই ক্ষেত্র সমূহে সম্পৃক্ত সকলকে আমি আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি।

সামনের দিনগুলো আরও কঠিনতর হবে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে মহান আল্লাহর ওপর পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস রেখে আপনাদেরকে আবারো নিশ্চিত করতে চাই যে ভবিষ্যতেও ইনশাআল্লাহ আমরা এই বিপদের মোকাবিলা করবো প্রত্যেক নাগরিক ও মুকীমের সুস্বাস্থ্য এবং তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য।

তাছাড়া স্বাস্হ্য মন্ত্রণালয় জানায়, বৃহস্পতিবার সৌদিতে নতুন করে ৩৬ জন করোনাভাইরাসের আক্রান্ত চিহ্নিত করা হয়েছে, এইনিয়ে সর্বমোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ শত ৭৪ জন। তবে, স্বাস্হ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নতুন করে আক্রান্ত ১৭ জন মরক্কো, স্পেন, ইরান, ব্রিটেন, পাকিস্তান, ভারত, ইরাক, কুয়েত, আমেরিকা এবং মিশর থেকে আসা । ১৯ জন তাদের সংস্পর্শে থাকা ব্যক্তি । এই পর্যন্ত মোট আটজন করোনা রোগী সুস্হ হয়ে ঘরে ফিরেছেন। পূর্বের একজন বাংলাদেশী আক্রান্ত হওয়া ছাড়া নতুন করে কোন বাংলাদেশী আক্রান্তের খবর পাওয়া যায়নি। তবে এখন পর্যন্ত সৌদি আরবে কোন করোনা রোগী মারা যায়নি ।

মন্ত্রণালয় জনসাধারণকে সরকারের অফিসিয়াল উৎস থেকে তথ্য নেওয়ার এবং গুজবে বিশ্বাস না করার জন্য আহবান জানান ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই পাতার আওর সংবাদ