সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০২:০৬ পূর্বাহ্ন

ভোলাহাট-রহনপুর সড়কে বের হলে লাশ হয়ে বাড়ি ফেরার ভয়

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম / ০ Views পাঠক
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ভোলাহাট-রহনপুর সড়কে বের হয়ে যানবাহনে উঠলে বুক কাঁপে। বললেন ভোলাহাট উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের সবজি চাষি মোঃ এহেসান আলী। তিনি বলেন, আমি বেগুন, পেঁপে, পটল চাষ করি।

জমি থেকে ফসল তুলে ভোলাহাট- রহনপুর সড়ক দিয়ে অটো কখন ভ্যানে বাজারে বিক্রির জন্য নিয়ে যায়। এ সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে ভেঙ্গে থাকায় চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় মালবাহী গাড়ী উল্টে অনেক সময় ফসল নষ্ট হলেও ক্ষতবিক্ষত হয়ে জানে বেঁচে গিয়েছি।

তিনি বলেন, আমি একমাত্র পরিবারের উপর্জনক্ষম ব্যক্তি। ভাঙ্গা সড়কে ফসল বিক্রি করতে বের হয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন পরিবারের নির্ভরশীল ৫জন সদস্যকে পথে বসতে হবে।
তিনি ভোলাহাট উপজেলার মানুষের নাগরিক অধিকার ভাঙ্গা সড়কটি যোগাযোগের উপযোগী করে অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও পথচারিদের দূর্ভোগ কমানোর জন্য সড়কটি প্রস্থ ও পূর্ন নির্মাণের দাবী করেছেন।

দলদলী ইউনিয়নের সবজি চাষি মোঃ শামীম জানান, কয়দিন পূর্বে ভোলাহাট- রহনপুর সড়ক দিয়ে মেডিকেল মোড় থেকে সবজি বিক্রি করে বাড়ী ফেরার সময় সরু রাস্তায় ট্রাক পারাপারের সময় দূর্ঘটনার শিকার হয়ে অন্ডকোষে আঘাত পেয়ে আহত হয়ে বাড়ীতে অসহায় অবস্থায় পড়ে আছি।

অটো চালক মোঃ মুক্তার জানান, ২৫ সেপ্টেম্বর শনিবার ভোরে আলীমোড়ে রাস্তা ভেঙ্গে থাকায় অটো উল্টে যাত্রী ও আমি জানে বেঁচে গিয়েছি।

উপজেলার গোহালবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল কাদের অভিযোগ করেন বলেন, ভোলাহাট-রহনপুর মাত্র ২১ কিলোমিটারের সড়ক ও জনপথ বিভাগের রাস্তাটি পথচারিদের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। যুগের পর যুগ পার হলেও সড়কটি নির্মাণে কোন পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না। ভাঙ্গাচুরা এ রাস্তায় চলাচল করতে গিয়ে লাশ হয়ে বাড়ী ফেরার আশংকায় বুক কাঁপে।

এরপরও সরকারের কেউ উপজেলার একমাত্র গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি মেরামতের কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। উপজেলার একমাত্র ভরসা গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি পূর্ণনির্মাণের দাবী এলাকাবাসীর।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই পাতার আওর সংবাদ