1. azadkalam884@gmail.com : A K Azad : A K Azad
  2. bartamankantho@gmail.com : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  3. cmisagor@gmail.com : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  4. hasantamim2020@gmail.com : হাসান তামিম : হাসান তামিম
  5. khandakarshahin@gmail.com : Khandaker Shahin : Khandaker Shahin
মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১২:১২ পূর্বাহ্ন
১০ বছরে বর্তমানকণ্ঠ-
১০ বছর পদার্পণ উপলক্ষে বর্তমানকণ্ঠ পরিবারের পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা....

শেষ বিকেলে ভিড় বাড়ছে বইমেলায়

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  • প্রকাশিত : রবিবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

শিল্প-সাহিত্য ডেস্ক । বর্তমানকণ্ঠ ডটকম-
অমর একুশে বইমেলা। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যকে মর্যাদার চূড়ান্ত শিখরে পৌঁছে দিতে দেশি-বিদেশি বাঙালি লেখক-কবি-সাহিত্যিকরা পাঠকের জন্য নতুন নতুন বই নিয়ে প্রতিবারের মতো এবারও হাজির হচ্ছেন মাসব্যাপী এই মেলায়। বাংলা একাডেমি আয়োজিত এ মেলা চলবে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এবারের মেলার মূল থিম নির্ধারণ করা হয়েছে ‘বিজয় : ১৯৫২ থেকে ১৯৭১, নবপর্যায়’।

গতকাল শনিবার ছিল মেলার দ্বিতীয় দিন। দ্বিতীয় দিনে ৮১টি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে। বাংলা একাডেমির জনসংযোগ দফতর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নতুন প্রকাশিত ৮১টি বইয়ের মধ্যে গল্প ১০টি, উপন্যাস ২০টি, প্রবন্ধ ৪টি, কবিতা ১৪টি, গবেষণা ১টি, ছড়া ১টি, জীবনী ৩টি, রচনাবলি ৪টি, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক ৪টি, নাটক ১টি, বিজ্ঞানবিষয়ক ৩টি, ভ্রমণ ২টি, ইতিহাস ৫টি, সায়েন্সফিকশন ২টি, অন্যান্য ৭টি বই রয়েছে।

ভাষা আন্দোলনের অমর স্মৃতিকে স্মরণ করতে এবং সারা দেশে বাংলা ভাষার সৃজনশীল ধারাকে ছড়িয়ে দিতে বাংলা একাডেমী প্রতিবছরই এই গ্রন্থমেলার আয়োজন করে।

বইমেলাকে ঘিরে প্রতিবছরের মতো এবারও মাসজুড়ে দেশি-বিদেশি হাজারো কবি, লেখক, সাহিত্যিকের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠবে বাংলা একাডেমী প্রাঙ্গণ ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান। নতুন নতুন বইয়ের পসরা সাজিয়ে এরইমধ্যে প্রস্তুতি প্রায় শেষ করেছে স্টলগুলো।

অন্যান্যবারের চেয়ে এবার নতুন বইয়ের সংখ্যা বাড়ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

আয়োজক সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিন দুপুরের পর থেকেই ধীরে ধীরে লেখক-পাঠকদের সমাগম বাড়তে থাকে মেলা প্রাঙ্গণে। সন্ধ্যার দিকে নানা পেশার মানুষ আর ক্রেতা-বিক্রেতাদের উপস্থিতিতে সরগরম হয়ে উঠে বাংলা একাডেমী ও ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যান।

প্রকাশকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সাধারণত মেলার প্রথম দিকে বেচাবিক্রি একটু কম থাকে। এসময় সবাই নতুন নতুন পছন্দের বইগুলো বিভিন্ন স্টলে ঘুরে ঘুরে দেখেন। মূল বেচাকেনা শুরু হয় মেলার মাঝামাঝি থেকে। সব মিলে এবার প্রত্যাশিত বেচাবিক্রি হবে বলে আশা করছেন প্রকাশকরা।




এই পাতার আরো খবর

















Bartaman Kantho © All rights reserved 2020 | Developed By
Theme Customized BY WooHostBD