1. azadkalam884@gmail.com : A K Azad : A K Azad
  2. bartamankantho@gmail.com : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  3. cmisagor@gmail.com : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  4. hasantamim2020@gmail.com : হাসান তামিম : হাসান তামিম
  5. khandakarshahin@gmail.com : Khandaker Shahin : Khandaker Shahin
শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১২:০০ পূর্বাহ্ন
১০ বছরে বর্তমানকণ্ঠ-
১০ বছর পদার্পণ উপলক্ষে বর্তমানকণ্ঠ পরিবারের পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা....

চিরকুটে মৃত্যুর কারণ লিখে ঈশ্বরগঞ্জে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীর আত্মহত্যা

মো. হুমায়ুন কবির, ময়মনসিংহ ।
  • প্রকাশিত : সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ময়মনসিংহ জেলার ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার আঠারবাড়ী ইউনিয়নের তেলুয়ারী গ্রামে পরিবারের উদ্দেশে চিরকুট লিখে বিষপানে আত্মহত্যা করেছে মীম আক্তার (১৪) নামের স্কুলছাত্রী। মীম আক্তার ওই গ্রামের সাইফুল ইসলামের মেয়ে। সে স্থানীয় আঠারবাড়ী এমসি উচ্চবিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। এ ঘটনায় ২৬ সেপ্টেম্বর শনিবার নিহত মীম আক্তারের বাবা সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে তেলুয়ারী গ্রামের মৃত বাচ্চু মিয়ার ছেলে জহিরুল মিয়ার (১৯) নামে ঈশ্বরগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

চিরকুটে লিখা ছিলো “বাবা মা ভাই বোনরা তোমরা আমাকে ক্ষমা করে দিও। বাবা তুমি এরা বাড়ির বাচ্চুর ছেরা জহিরুলেরে কমা করিও না। এ আমার জীবনটাকে নষ্ট করে দিয়ে চলে গেছে। আমি এত বড় পাপ নিয়ে বাচে থাকতে পারব না। ভালো থেকো বাবা আমি তোমাকে অনেক ভালোবাসি, বাবা আমার বেঁচে থাকার অনেক স্বপ্ন ছিল কিন্তু ও আমাকে বেঁচে থাকতে দিল না”।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২২ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৮টার সময় পরিবারের অগোচরে বিষপান করে টয়লেটের পাশে পড়ে ছিল মীম আক্তার। পরে মীমের মা নেহেরা আক্তার তাকে দেখতে পান। মীমের বাবা সাইফুল ইসলামকে খবর দিলে তাৎক্ষণিক তাকে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। মীমের অবস্থার অবনতি হলে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরদিন ২৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার রাত ১১টা ৫৫ মিনিটে মারা যায় সে। গত শুক্রবার মমেক হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে শনিবার সকালে তেলুয়ারী গ্রামের নিজ বাড়িতে মীমকে দাফন করা হয়।

পরিবার ও আশপাশের লোকজনের মাধ্যমে জানতে জানা যায়, জহিরুল ও মীমের মধ্যে দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। প্রেমের সম্পর্কের অবনতির কারণে আমার মেয়ে বিষপানে আত্মহত্যা করেছে। যা চিরকুটে লিখে গেছে।’ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ব্যক্তি বলেন, ‘লোকমুখে শুনেছি, মীম আক্তার ও জহিরুলের মধ্যে দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পাশাপাশি বাড়ি থাকায় তাদের মধ্যে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। একপর্যায়ে ছেলেটা প্রেমের সম্পর্ক অস্বীকার করলে মেয়েটা বিষপানে আত্মহত্যা করে।’

এ ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত জহিরুল মিয়া পলাতক রয়েছে। এ ছাড়া তার মুঠোফোনে কয়েকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল কাদের মিয়া বলেন, ‘এ-সংক্রান্তে অভিযোগের ভিত্তিতে নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।’




এই পাতার আরো খবর

















Bartaman Kantho © All rights reserved 2020 | Developed By
Theme Customized BY WooHostBD