শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৪:২৫ পূর্বাহ্ন

ছয় দফা দাবিতে মানববন্ধন করবে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা

হাসান তামিম, ঢাকা। / ৫২ পাঠক
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৪:২৫ পূর্বাহ্ন

তীব্র সেশন জট নিরসন, ফলাফল প্রকাশে দীর্ঘসূত্রিতা দূরীকরণ সহ নানাবিধ সমস্যার সমাধানের দাবিতে আবারো মানববন্ধনের ডাক দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত রাজধানীর সরকারি সাতটি কলেজের শিক্ষার্থীরা। আগামী বুধবার (৯ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে দ্বিতীয় দফায় মানববন্ধন করবেন তারা। শিক্ষার্থীরা জানান, ছয় দফা দাবিতে তাদের এই মানববন্ধন। দাবিগুলো হলো-

১. ২০১৭-১৮ ও ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ২.০০ / ২.২৫ / ২.৫০ পয়েন্টে পরবর্তী বর্ষে প্রমোটেড নিয়ম বাতিল করতে হবে এবং সর্বনিম্ন ৩ বিষয় পর্যন্ত অকৃতকার্য দের প্রমোটেড দিতে হবে।

২. অনার্স ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ২য় বর্ষের ইম্প্রুভ পরিক্ষা আগামী ১ মাসের মধ্যে নিতে হবে এবং ৩য় বর্ষের চুড়ান্ত পরীক্ষা অতি দ্রুত নিয়ে ফলাফল প্রকাশ করতে হবে।

৩. ২০১৫-২০১৬ সেশনের শিক্ষার্থীদের ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষা অতিদ্রুত নিয়ে ফলাফল প্রকাশ করতে হবে।

৪. সকল বর্ষের ফলাফল সর্বোচ্চ ৯০ দিনের মধ্যে প্রকাশ করতে হবে। একটি সেশনে একের অধিক বর্ষের শিক্ষার্থী রাখা যাবে না।

৫. ডিগ্রি ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের চলমান বিশেষ পরীক্ষা অতি দ্রুত নিয়ে ১ মাসের মধ্যে ফলাফল প্রকাশিত করতে হবে।

৬. সকল ইম্প্রুভ পরীক্ষা অতি দ্রুত নিতে হবে এবং ডিগ্রি অনার্স, মাস্টার্স-সহ সকল বর্ষের ফলাফল গণহারে অকৃতকার্য হওয়ার কারণ সহ খাতা পুনঃমুল্যায়ন করতে হবে।

ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী নাজমুস শাহাদাত সাকিব বলেন, সরকারি এই সাতটি কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভূক্ত করার পর থেকে ভোগান্তি পিছু ছাড়ছে না প্রায় আড়াই লাখ শিক্ষার্থীর। নানান অনিয়মের অভিযোগ করে আমরা সমাধান চেয়ে বার বার রাস্তায় নেমেছি। কিন্তু কার্যকরি কোন সমাধান পাইনি। ঢাবির অধিভুক্তির পর থেকে তীব্র সেশন জট, ফলাফল প্রকাশে দীর্ঘসূত্রিতা, ত্রুটিযুক্ত ফলাফল প্রকাশসহ নানা সমস্যায় পড়তে হয়েছে আমাদের। আমরা এর সুষ্ঠু সমাধান চাই।

উল্লেখ্য, শিক্ষার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ২০১৭ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর ঢাকা কলেজ, ইডেন কলেজ, শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, কবি নজরুল কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, মিরপুর বাঙলা কলেজ ও সরকারি তিতুমীর কলেজ- এই সাত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) অধিভুক্ত করা হয়। এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে অধ্যয়নরত আছেন প্রায় আড়াই লক্ষাধিক শিক্ষার্থী।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *