মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৩৪ পূর্বাহ্ন

দয়াগঞ্জ এলাকায় ছিনতাইকারীর ছোবলে প্রাণ গেলো ৫ মাসের শিশুর

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম / ৬৯ পাঠক
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৩৪ পূর্বাহ্ন

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম,সোমবার,১৮ ডিসেম্বর ২০১৭: ঢাকা: ভোরের ফাঁকা রাস্তায় দ্রুতবেগে চলছিলো রিকশা। মায়ের কোলে পাঁচ মাসের শিশু সন্তান আরাফাত। হঠাৎ ২-৩ জন ছিনতাইকারী রাস্তায় এসে হেঁচকা টান দিলো মায়ের হাতে থাকা ভ্যানিটি ব্যাগ। আচমকা টানে চলন্ত রিকশায় মায়ের কোল থেকে পড়ে যায় আরাফাত। আর বাঁচলো না সে। ব্যাগ কেড়ে নিতে আসা ছিনতাইকারীরা কেড়ে নিলো ফুটফুটে শিশুটির প্রাণও।

সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) ভোরে রাজধানীর দয়াগঞ্জ এলাকার রাস্তায় পড়ে শিশুটি গুরুতর জখম হওয়ার পর তৎক্ষণাৎ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে এলে সকাল ৭টায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

শিশুটির মায়ের নাম আকলিমা, বাবা শাহ আলম। এই দম্পতির আরও এক সন্তানের নাম আল আমিন (২০)। তারা শরীয়তপুর সদরের নরসিংদীপুরের বাসিন্দা। ভোরে লঞ্চযোগে শরীয়তপুর থেকে ঢাকায় ফিরছিলেন তারা।

সন্তানহারা আকলিমা বলেন, ‘আল আমিন দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। লঞ্চ থেকে নেমেই তাই তার বাবা আল আমিনকে নিয়ে শ্যামলী শিশু হাসপাতালে যায়। অন্য দিকে আমি আরাফাতকে নিয়ে রিকশাযোগে শনির আখড়ায় বোন মাকসুদার বাসায় যাচ্ছিলাম। আমাদের রিকশা দয়াগঞ্জে পৌঁছালে ২-৩ জন ছিনতাইকারী হঠাৎ ভ্যানিটি বেগে টান দেয়।’

তিনি আহাজারি করে বলেন, ‘ছিনতাইকারীদের হেঁচকা টানে কোল থেকে আমার আরাফাত পড়ে যায়। তারা আমার ব্যাগ কেড়ে নিয়েছে। আমার কলিজার টুকরাকেও কেড়ে নিয়েছে।’

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া জানান, মুমূর্ষু অবস্থায় শিশুটিকে ঢামেকে নিয়ে এলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গেন্ডারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, দয়াগঞ্জে শিশুর মৃত্যুর সংবাদ পুলিশ পেয়েছে। ঘটনাটি গেন্ডারিয়া থানার মধ্যে হয়েছে কি-না জানার চেষ্টা করছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *