শুক্রবার, ১৭ মে ২০২৪, ১২:২০ পূর্বাহ্ন

নরসিংদীতে সুবিমল দাস স্বপনের একক আলোকচিত্র প্রদর্শনী ‘দৃষ্টিতে স্বদেশ’

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম / ৬৪ পাঠক
শুক্রবার, ১৭ মে ২০২৪, ১২:২০ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক:
নরসিংদীর আলোকচিত্র শিল্পী সুবিমল দাস স্বপন। ছবি তোলা যার একমাত্র নেশা ও পেশা। জীবন ও প্রকৃতির সঙ্গে গভীরভাবে তাঁর মেলামেশা। আর তাই দেশের আনাচে কানাচে ঘুরে আলোকচিত্রের মধ্য দিয়ে তুলে ধরেছেন বাংলাদেশের ইতিহাস, ঐহিত্য, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য ও মানুষের জীবনের গল্প।
মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সুবিমলের ১০০ ফ্রেমের আলোকচিত্র নিয়ে শুরু হয়েছে পাঁচদিন ব্যাপী একক আলোকচিত্র প্রদর্শনী। মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৪ টায় নরসিংদী জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে জমকালো এই আয়োজনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববরেণ্য চিত্রশিল্পী ও বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন আহমেদ। সবার জন্য উন্মুক্ত প্রদর্শনীটি চলবে প্রতিদিন বিকেল ৩ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত। সুবিমলের আলোকচিত্র প্রদর্শনীর শিরোনাম ‘দৃষ্টিতে স্বদেশ’।

নরসিংদীর জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মতিন ভূঁইয়া, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শফিউর রহমান। আরো উপস্থিত ছিলেন, নরসিংদী সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী, অধ্যাপক গোলাম মোস্তাফা মিয়া।
আলোকচিত্র শিল্পী সুবিমল দাস স্বপন বলেন, আমি চেষ্টা করেছি আলোকচিত্রের মাধ্যমে আমার এই দেশ মাতৃকার ইতিহাস, ঐহিত্য ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য ফুটিয়ে তুলতে। আজকে এই প্রদর্শনীতে নরসিংদীর কৃতীসন্তান বিশ্ববরেণ্য চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন স্যারের উপস্থিতি আমার এই আলোকচিত্রকে গৌরবান্বিত করেছেন। আর আমাকে অনুপ্রাণিত করেছেন।
সুবিমল দাস স্বপন আলোচিত্রে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে অনেক পুরস্কার লাভ করেন। ২০০০ সালে জাপানে অনুষ্ঠিত এশিয়া প্যাসিফিক কালচারাল সেন্টার ফর ইউনেস্কো কর্তৃক আয়োজিত (খরারহম রহ ঐধৎসড়হু) শীর্ষক প্রতিযোগীতায় অংশ নিয়ে ফুজি ফিল্ম প্রাইজ ফর এক্সিলেন্স আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করেন।
২০০৩ সালে অষ্টম জাতীয় আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে তিনি ২টি জাতীয় পুরস্কার অর্জন করেন এবং বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতির হাত থেকে পুরস্কার গ্রহণ করেন। ২০০৪ সালের ভারতের কলকাতায় সত্যরিজ রায় ফিল্ম ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত সপ্তম আন্তর্জাতিক ফটোগ্রাফিক কনফারেন্স-এ তাঁর দুটি ছবি মনোনীত হয়ে প্রদর্শনী হয়। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ ফটোগ্রাফিক সোসাইটি থেকে পরপর ২ বার গ্রান্ড পুরস্কার ও প্রথম পুরস্কার সহ ১১বার বি.পি.এস পুরস্কার লাভ করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *