1. azadkalam884@gmail.com : A K Azad : A K Azad
  2. bartamankantho@gmail.com : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  3. cmisagor@gmail.com : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  4. hasantamim2020@gmail.com : হাসান তামিম : হাসান তামিম
  5. khandakarshahin@gmail.com : Khandaker Shahin : Khandaker Shahin
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০১:২৪ পূর্বাহ্ন
১০ বছরে বর্তমানকণ্ঠ-
১০ বছর পদার্পণ উপলক্ষে বর্তমানকণ্ঠ পরিবারের পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা....

সালথায় আওয়ামী লীগের ২ গ্রুপের সংঘর্ষে আহত দেড় শতাধিক

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম
  • প্রকাশিত : শনিবার, ২০ জানুয়ারি, ২০১৮

সালথা (ফরিদপুর),বর্তমানকণ্ঠ ডটকম,শনিবার,২০ জানুয়ারী ২০১৮: সালথায় এলাকায় প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপের মধ্যে তিনটি সংঘর্ষে অন্তত দেড় শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছে। সংঘর্ষের সময় অন্তত ১৫টি বসতঘর ও দোকান ভাংচুর করা হয়। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে ও শনিবার সকালে উপজেলার মাঝারদিয়া এবং রামকান্তুপুর এলাকায় এসব সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে টিয়ারশেল ও শর্টগানের গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্থানীয়রা জানায়, এলাকায় প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে শুক্রবার বিকালে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও মাঝারদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হামিদের সমর্থক গিয়াস মাতুব্বরকে মারধর করে মাঝারদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সেলিম মাতুব্বরের সমর্থকরা। এ নিয়ে সন্ধ্যায় উভয় পক্ষের সমর্থকরা দেশিয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী চলে এ সংঘর্ষ। এতে অন্তত ৫০জন আহত হয়।

এ সময় ৬১ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। এই সংঘর্ষের জের ধরে শনিবার সকালে একইস্থানে উভয় গ্রুপের সমর্থকরা আবারও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে প্রায় ৭০জন আহত হয়। এ সময় ৫টি টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।

এরআগে শুক্রবার রাতে উপজেলার রামকান্তুপুর এলাকায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক চৌধুরী সাব্বির আলীর সমর্থকদের সাথে ও রামকান্তুপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলতাফ মোল্যার সমর্থদের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এতে অন্তত ৩০জন আহত হয়। সংঘর্ষ চলাকালে অন্তত ১৫টি বসতঘর ও দোকানপাট ভাংচুর করা হয়। এসব সংঘর্ষে আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল, সদর ও নগরকান্দা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

সালথা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, সংঘর্ষের খবর পেয়ে উভয় সংঘর্ষের স্থানে গিয়ে টিয়ারশেল ও শর্টগানের গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। এলাকার পরিবেশ এখন শান্ত।




এই পাতার আরো খবর

















Bartaman Kantho © All rights reserved 2020 | Developed By
Theme Customized BY WooHostBD