রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০১:৫২ অপরাহ্ন

‘সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত হয়নি, ইভিএমের প্রস্তুতি নেই’

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম / ৪৯ পাঠক
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০১:৫২ অপরাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা।

এছাড়া আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করার জন্য কমিশন প্রস্তুত নয় বলে জানান তিনি।

বুধবার (১৫ নভেম্বর) আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে নিজ কার্যালয়ে সিইসি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

আগামী নির্বাচনে কোন বাহিনী থাকবে? সেনাবাহিনী মোতায়েনের সিদ্ধান্ত কি আপনারা নিয়ে ফেলেছেন- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘না, আমরা এখনও সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলিনি। প্রতিটি জাতীয় নির্বাচনেই সেনাবাহিনী মোতায়েন থাকে। এটা একটা বাস্তবতা। কিন্তু আমরা এখন পর্যন্ত কমিশন বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেইনি। অনেক সময় আছে, এতো তাড়াতাড়ি আপনারা এ সিদ্ধান্ত চান কেন? এখনও এক বছরের বেশি সময় আছে সেই অবস্থানে পৌঁছাতে। এতো আগে তো সেই সিদ্ধান্ত দেয়া যাবে না।’

সংলাপে অধিকাংশ দলই সেনার কথা বলেছে। সংলাপের সুপারিশ এবং সেনা মোতায়েন নিয়ে আপনাদের মনোভাব কী এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমাদের এই মনোভাবটা কমিশন মিটিংয়ের আগে আমি বলতে পারব না। আমাদের মনোভাব তো আমার মনোভাব হবে না। যেহেতু এটা নিয়ে কমিশনের সাথে এখনও আলোচনা করিনি। তাই এখনই বলা যাবে না। আমাদের কী মনোভাব।’

জনগণ তো চায় নির্বাচনে সেনা মোতায়েন হোক। কমিশন কি জনগণের দিকটা বিবেচনা করবে নাকি সাংগঠনিকভাবে নির্বাচন কমিশন যেটা সঠিক মনে করে সেই সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন করবে- এর জবাবে নূরুল হুদা বলেন, ‘সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন করব। পরিমাপ করে তো বলতে পারি না যে কত সংখ্যক জনগণ চায় আর কত সংখ্যক জনগণ চায় না। সেটা একটা দিক আছে জনগণের কথা আমরা শুনি, আমরা বিবেচনা করি। তবে যে সিদ্ধান্ত আমরা নেব, সেটা কিন্তু পুরোপুরি কমিশনের সিদ্ধান্ত।’

একজন কমিশনার সেনা মোতায়েনের কথা বলেছেন- এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি পত্রিকা পড়ে দেখেছি উনি বলেছেন। এটা কমিশনের সিদ্ধান্ত নয়। সেটা আমি লক্ষ্য করেছি। উনি মনে করেন যে, সেনা মোতায়েন করার প্রয়োজন হবে। এটা তার একটা ব্যক্তিগত মতামত। উনি তো খুব বেশি ভুল বলেছেন মনে হয় না। এটা আমরা সময়মতো বলব। সময়মতো অবশ্যই আপনাদের মাধ্যমে জাতিকে জানাব যে, আমরা কীভাবে করব। মানে সেনা মোতায়েন কীভাবে করব। সেনা মোতায়েন করার বিষয়ে যে সিদ্ধান্ত তা জানাব, আমাদের কমিশন মিটিংয়ের পর। তখন বিস্তারিতভাবে সেনা মোতায়েনের অবস্থানটা কি হবে, না হবে তা জানানো যাবে।’

ইভিএম প্রসঙ্গে সিইসি বলেন, ‘আমি তো আগেও বলেছি যে, আমরা কিন্তু জাতীয় পর্যায়ের নির্বাচনে জন্য ইভিএম নিয়ে প্রস্তুত না। এটা আমরা স্থানীয় পর্যায়ে পরীক্ষামূলকভাবে চালাব। কিন্তু জাতীয় নির্বাচনে ইভিএম প্রয়োগ করার জন্য আমরা একেবারেই প্রস্তুত না।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *