শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০৭:৫১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম-
গাজায় ইসরায়েলি হামলায় নিহত আরও ৩৮ ফিলিস্তিনি জেলেনস্কির হোমটাউনে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় নিহত ৯ বিমান দুর্ঘটনায় ভাইস প্রেসিডেন্ট নিহত: মালাবিতে ২১ দিনের শোক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হত্যা: বিচারের দাবীতে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে মহাসড়ক অবরোধ মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার অস্থিরতাকারীদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি নাগরিক সমস্যা সমাধানে সরকার ও নাগরিকের অংশীদারিত্ব প্রয়োজন: তথ্য প্রতিমন্ত্রী বিনা কর্তনে সেন্সর ছাড়পত্র পেল ‘মুনাফিক’ আমাদের দিয়ে রান্না করাতো জলদস্যুরা, খেয়ে ফেলতো সবই যাতায়াতের দুর্ঘটনায় ক্ষতিপূরণ পাবে পোশাক শ্রমিকরা আলোচিত সংগীতশিল্পীসহ নিহত ২, পালিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি বাসচালকের

একুশের গ্রন্থমেলা: ৬৬২টি স্টল বরাদ্দ দিয়েছে বাংলা একাডেমি

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম / ৪৫ পাঠক
শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০৭:৫১ পূর্বাহ্ন

নিউজ ডেস্ক,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম,সোমবার,০৮ জানুয়ারী, ২০১৮: অমর একুশের গ্রন্থমেলায় অংশ্রগ্রহণের জন্য আজ সোমবার বাংলা একাডেমি থেকে স্টল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এবার মোট ৬৬২টি স্টল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। গত মেলার চেয়ে এবার স্টলের ইউনিট বৃদ্ধি পেয়েছে ১৩৩টি। এবারের মেলায় নতুন ২৪টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে স্টল দেয়া হয়েছে। বেড়েছে প্যাভিলিয়নের সংখ্যা ১২টি। গতবার প্যাভিলিয়ন ছিল ১১টি। এবার এ প্যাভিলিয়ন বরাদ দেয়া হয়েছে মোট ২৩টি। বরাদ্দ দেয়া স্টলের তালিকা প্রকাশ করে আজ বাংলা একাডেমির নোটিশ বোর্ডে টানিয়ে দেয়া হয়েছে।

বাংলা একাডেমির পরিচালক ও একুশে গ্রন্থমেলা কমিটির সদস্য সচিব ড. জালাল আহমেদ জানান, বরাদ্দপ্রাপ্ত প্রকাশনা সংস্থাগুলোর মধ্যে আজ থেকেই আবেদনপত্র দেয়া হবে। স্টলের ভাড়ার টাকাসহ আবদেনপত্র আজ থেকেই সংশ্লিষ্ট বিভাগে জমা নেয়া হবে। আবদনপত্র জমা শেষ হওয়ার পর লটারির মাধ্যমে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের স্টল বরাদ্দ দেয়া হবে। তিনি জানান, একাডেমির বয়রাতলায় অন্যান্যবারের মতো লিটলম্যাগ স্টল থাকবে। দু’একদিনের মধ্যেই লিটলম্যাগ স্টলবরাদ দেয়া হবে।

তিনি জানান, অন্যান্য বারের মতো এবারের মেলাতেও দোয়েল চত্বর থেকে ঢাবির টিএসসি পর্যন্ত সড়কটিতে কোন হকার বসতে দেয়া হবে না। এই সড়কটি দর্শনার্থীদের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

এবারের মেলায় মোট প্যাভিলিয়ন দেয়া হয়েছে ২৩টি। এর মধ্যে পুরনো প্রকাশনা সংস্থা ১১ এবং নতুন প্যাভিলিয়ন বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ১২টি সংস্থাকে। পুরনো প্রতিষ্ঠান প্যাভিলিয়ন পেয়েছে- আগামী প্রকাশনী, উৎস, অনুপম, অন্বেষা, অবসর, অনন্যা, কাকলী, সময়, মওলা, পাঠক সমাবেশ, পাঞ্জেরী ও অন্য প্রকাশ। নতুন প্যাভিলিয়ন পেয়েছে আনন্দ পাবলিশার্স, নালন্দা, শোভা, তাম্রলিপি, ইত্যাদি, উৎস প্রকাশন, প্রথমা, কথা প্রকাশন, বাংলা প্রকাশ ও জার্নিম্যান বুকস।

চার ইউনিটের স্টল দেয়া হয়েছে মোট ১৮টি প্রতিষ্ঠানকে। এগুলো হচ্ছে- শিখা, অক্ষর, অ্যাডর্ণ, সাহিত্য প্রকাশ, দিব্য, নবযুগ, আহমেদ পাবলিশার্স, ইউপিএল, চারুলিপি, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র, রোদেলা, বিদ্যা, স্টুডেন্ট ওয়েজ, জোনাকী, শব্দশৈলী, ইউনিভার্সেল একাডেমিকে। ৩ ইউনিটের স্টল দেয়া হয়েছে ৩২টি প্রতিষ্ঠানকে। এর মধ্যে ১৪টি প্রতিষ্ঠান শিশুকিশোর বই প্রকাশনা সংস্থা। এগুলো হচ্ছে- নওরোজ, সাহিত্যমালা, জ্যোৎস্না, সৃজনী, বিজয়, একুশে বাংলা, মুক্তধারা, চন্দ্রাবতী, শ্রাবণ, অঙ্কুর, জ্ঞানকোষ, সাহিত্যবিলাস, মিজান পাবলিশার্স, সুবর্ণ, গতিধারা, জনতা, সূচীপত্র, জাগৃতি, সন্দেশ, জাতীয় সাহিত্য প্রকাশ ও ভাষাচিত্র।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *