সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০১:৫০ পূর্বাহ্ন

ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলার দ্বিতীয় দিনে উপচেপড়া ভির,শেষ দিন আজ

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম / ০ Views পাঠক
শনিবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২০

তিন দিনব্যাপী ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলার দ্বিতীয় দিন গতকাল শুক্রবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের প্যাভিলিয়নগুলো কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের আগ্রহী শিক্ষার্থীদের উপচেপড়া ভিড় ছিলো চোখে পড়ার মতো। প্রযুক্তির মহাসড়ক বিনির্মাণের অগ্রগতি, চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা এবং পরিবর্তিত বিশ্বে নতুন সভ্যতার রূপান্তরে আইওটি, রোবটিক্স, বিগডাটা, ব্লকচেইন প্রযুক্তির মহাসড়ক ফাইভ জি‘র বিস্ময়কর প্রভাব প্রদর্শন এবারের ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলার মূল আকর্ষণ। মেলায় প্রযুক্তির বিস্ময়কর সংস্করণ ফাইভ জি প্রদর্শণ করা হচ্ছে।
দ্বিতীয় দিনে মেলায় মন্ত্রী এবং সিনিয়র সরকারী কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিশেষজ্ঞগণের অংশ গ্রহণে উদ্ভাবক ও উদ্যোক্তা, ভবিষ্যত বাংলাদেশের চালিকা শক্তি, উন্নত সেবা প্রদানে ডিজিটাল সরকার, স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন্স এবং ডিজিটাল ব্রডকাস্টিং, প্রেক্ষিত বাংলাদেশ, টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জনে ডিজিটাল প্রযুক্তি শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
প্রধানমন্ত্রী‘র তথ্য ও যোগাযোগপ্রযু্িক্ত উপদেষ্টা জনাব সজীব আহমেদ ওয়াজেদ কর্তৃক উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হযেছে তিন দিনব্যাপী ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা ২০২০। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ দেশে এই প্রথমবারের মতো ডিজিটাল প্রযুক্তি নিয়ে এ ধরনের মেলার আয়োজন করে।
ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের উদ্যোগে ডিজিটাল প্রযুক্তি খাতের সরকারি – বেসরকারি অংশীজনদের নিয়ে এই মেলার আয়োজন করা হয়। ১৮ জানুয়ারি তিন দিনব্যাপী এই মেলা শেষ হবে।
এ মেলায় আইএসপিসহ ৮২টি প্রতিষ্ঠান, প্যারেন্টাল কন্ট্রোল, ট্রিপল প্লে (এক ক্যাবলে ল্যান্ডফোনের লাইন, ইন্টারনেট ও ডিশ সংযোগ), মোবাইল অ্যাপস, ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা ও ডিজিটাল প্রযুক্তি ইত্যাদি প্রদর্শন করবে। ওয়ালটন, স্যামসাং, সিম্ফনির মতো প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের উৎপাদিত পণ্য প্রদর্শন করছে। এছাড়াও দেশি সফটওয়্যার কোম্পানিগুলো তাদের তৈরি সফটওয়্যার ও সেবা উপস্থাপন করছে। টেলিকম অপারেটরগুলো তাদের ভয়েস, ইন্টারনেট ও মূল্য সংযোজিত সেবা (ভ্যাস) দেখাচ্ছে। এছাড়া জেডটিই, হুয়াওয়ে, নকিয়া, এরিকসন ফাইভ-জি প্রযুক্তি প্রদর্শন করবে। দেখাবে লাইভ ব্যবহারের উপযোগিতা। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট টেলিমেডিসিন ও এটিএম সেবা দেখাবে। জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ভিশন মেলার মাধ্যমে টেলিমেডিসিন প্রদর্শীত হচ্ছে। মেলায় লাইভ দেখা যাচ্ছে ফাইভ-জি।

মেলায় ২৫টি স্টল, ২৯টি মিনিপ্যাভিলিয়ন এবং ২৮টি প্যাভিলিয়ন থাকবে। এতে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের ডিজিটাল অগ্রগতি তুলে ধরা হবে। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সব সংস্থা- এতে অংশ নিয়েছে।
আগামীকাল শনিবার বিকালে অর্থমন্ত্রী জনাব আ হ ম মুস্তফা কামাল ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা ২০২০ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে যোগদান করবেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই পাতার আওর সংবাদ