বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৩:৩৫ পূর্বাহ্ন

‘জয় বাংলা’ স্লোগানে মুখরিত ব্রাসেলসের স্কুল

নিজস্ব প্রতিবেদক | বর্তমানকণ্ঠ ডটকম- / ১৪৫ পাঠক
বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৩:৩৫ পূর্বাহ্ন

দেশি-বিদেশি শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে বেলজিয়ামের ব্রাসেলসের বাংলাদেশ দূতাবাস জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে এ দিন সকালে দূতাবাসের উদ্যোগে ব্রাসেলসের বেপস ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে শতাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত সালেহ শিশু শিক্ষার্থীদের কাছে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশকে তুলে ধরেন। বঙ্গবন্ধুর ওপর নির্মিত একটি ডকুমেন্টারি ও একটি টাইমলাইন শিক্ষার্থীদের জন্য উপস্থাপন করা হয়। প্রশ্নোত্তর পর্বে শিশু-কিশোররা বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম, বাংলাদেশের স্বাধীনতা, ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা ও বাংলাদেশ সম্পর্কে জানার আগ্রহ প্রকাশ করে।

এ সময় বাঙালির ইতিহাসে ‘জয় বাংলা’ স্লোগানের প্রেক্ষাপট তুলে ধরে রাষ্ট্রদূত সালেহ বিদেশি শিক্ষর্থীদের সঙ্গে নিয়ে ‘জয় বাংলা’ স্লোগানে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণকে মুখরিত করেন। অনুষ্ঠান শেষে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের ১০৭ শিক্ষার্থীর হাতে ‘মুজিব গ্রাফিক নভেল’-এর ইংরেজি অনুবাদ তুলে দেয়া হয়।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সকল শহীদ স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালনের মধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু কার হয়। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর পাঠানো বাণী পাঠ করা হয়। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় পরিবেশিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ওপর নির্মিত একটি তথ্যচিত্র উপস্থিত অতিথিদের সামনে প্রদর্শন করা হয়।

দিবসটি উপলক্ষে গত ১১ মার্চ শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে দূতাবাসে আয়োজিত কবিতা, চিত্রাঙ্কণ ও রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ও অংশগ্রহণকারী সকলের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে বেলজিয়াম ও লুক্সেমবার্গে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এবং ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে মিশন প্রধান মাহবুব হাসান সালেহ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, ‘শিশু-কিশোরদের মধ্যে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও চেতনা আরও গভীরে প্রোথিত হবে।’ বক্তব্য শেষে তিনি শিশু-কিশোরদের সঙ্গে নিয়ে দূতাবাস প্রাঙ্গণে সমস্বরে ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগান দেন।

দিবসটির গুরুত্ব ও তাৎপর্য শীর্ষক আলোচনায় বেলজিয়াম ও লুক্সেমবার্গে বসবাসরত বাঙালি কমিউনিটির সদস্যরা বলেন, ‘জাতির পিতার প্রতি সম্মান প্রদর্শনের সর্বোত্তম উপায় হলো তার জীবনাদর্শকে সবার মধ্যে ছড়িয়ে দেয়া।

দিনের শুরুতে রাষ্ট্রদূত মাহবুব হাসান সালেহ দূতাবাস প্রাঙ্গণে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। এরপর দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *