রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১০:২১ অপরাহ্ন

শিরোনাম-
গাজায় ইসরায়েলি হামলায় নিহত আরও ৩৮ ফিলিস্তিনি জেলেনস্কির হোমটাউনে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় নিহত ৯ বিমান দুর্ঘটনায় ভাইস প্রেসিডেন্ট নিহত: মালাবিতে ২১ দিনের শোক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হত্যা: বিচারের দাবীতে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে মহাসড়ক অবরোধ মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার অস্থিরতাকারীদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি নাগরিক সমস্যা সমাধানে সরকার ও নাগরিকের অংশীদারিত্ব প্রয়োজন: তথ্য প্রতিমন্ত্রী বিনা কর্তনে সেন্সর ছাড়পত্র পেল ‘মুনাফিক’ আমাদের দিয়ে রান্না করাতো জলদস্যুরা, খেয়ে ফেলতো সবই যাতায়াতের দুর্ঘটনায় ক্ষতিপূরণ পাবে পোশাক শ্রমিকরা আলোচিত সংগীতশিল্পীসহ নিহত ২, পালিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি বাসচালকের

সুনামগঞ্জের বালিয়াঘাট সীমান্তে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ৩০মে.টন কয়লা পাচাঁর

বর্তমানকণ্ঠ ডটকম / ৩৯ পাঠক
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১০:২১ অপরাহ্ন

জাহাঙ্গীর আলম ভুঁইয়া,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম,রবিবার,১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ : সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বালিয়াঘাট সীমান্ত দিয়ে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ৩০মে.টন (৪৫০বস্তা) কয়লা পাচাঁর করার খবর পাওয়া গেছে। পাচাঁরকৃত কয়লার বর্তমান বাজার মূল্য ৩লক্ষ ৩০হাজার টাকা।

এব্যাপারে লাকমা ও বড়ছড়া শুল্কস্টেশনের ব্যবসায়ীরা জানায়,প্রতিদিনের মতো ১১ ফেব্রুয়ারি রবিবার ৫টায় বালিয়াঘাট ক্যাম্পের হাবিলদার ফখরুদ্দিন ও নায়েক ওলি বিজিবি সদস্যদেরকে নিয়ে লাকমা ও টেকেরঘাট এলাকায় টহলে গিয়ে তাদের সোর্স চাঁদাবাজি মামলা নং-জিআর ১৬৩/০৭ইং এর জেলখাটা আসামী জিয়াউর রহমান জিয়া,চাঁদাবাজি ও মদ পাচাঁরসহ ৮টি মামলার জেলখাটা আসামী কালাম মিয়া,আব্দুল হাকিম ভান্ডারী ও ইদ্রিস আলীকে দিয়ে ১বস্তা কয়লা থেকে বালিয়াঘাট ক্যাম্পের ম্যাচ খরছ(খাওয়া-দাওয়া)বাবদ ৫০টাকা,হাবিলদার ফখরুদ্দিনের নামে ২০টাকা,নায়েক ওলির নামে ১০টাকা,টেকেরঘাট পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই ইমামের নামে ২০টাকা,ডিবি পুলিশের নামে ২০টাকা, সাংবাদিকদের নাম ভাংগিয়ে কয়লার পাচাঁর মামলা নং-১৫৮/০৭এর আসামী আব্দুর রাজ্জাক ৩০টাকা,সুনামগঞ্জ ২৮ব্যাটালিয়নের বিজিবি অধিনায়কের নামে ৫০টাকাসহ মোট ২২০টাকা করে সর্বমোট ৯৯ হাজার টাকা চাঁদা নিয়ে লাকমা গ্রামের চিহ্নিত চোরাচালানী রতন মহলদার,মানিক মহলদার, মোক্তার মহলদার,কামরুল মিয়া,  শরিফ মিয়া ও তিতু মিয়া গংকে দিয়ে লাকমাছড়ার রেন্টিগাছ এলাকার ১১৯৭ ও ১১৯৮নং পিলার সংলগ্ন ৬টি চোরাইঘাট দিয়ে ৪৫০বস্তা(৩০মে.টন) কয়লা পাচাঁর করে ২৫টি ঠেলাগাড়ির মাধ্যমে বালিয়াঘাট বিজিবি ক্যাম্পের সামনে অবস্থিত দুধেরআউটা গ্রামের কবরস্থানের পাশে নিয়ে সোর্স জিয়াউর রহমান ও হুমায়ুন মিয়ার ওপনে বিক্রি করে।

এব্যাপারে বালিয়াঘাট ও বড়ছড়া শুল্কষ্টেশনের ব্যবসায়ী আসাদ মিয়া,কলিম উদ্দিন,শাহিন মিয়া,জমির উদ্দিন,পাবেল মিয়াসহ অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন,এই সীমান্তের রক্ষকরা হয়েছেন ভক্ষক,তাই রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে চোরাচালান ও চাঁদাবাজি করে সোর্স জিয়াউর রহমান জিয়া,কালাম মিয়া ও আব্দুর রাজ্জাক গং রাতারাতি হয়েছে আঙ্গল ফুলে কলাগাছ। কিন্তু তাদের এই অনিয়ম দেখার কেউ নেই।

এব্যাপারে বালিয়াঘাট বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার হাবিলদার ফখরুদ্দিন বলেন,চোরাই পথে কয়লা পাচাঁর হলে হতেও পারে কারণ চোরাচালানী রতন,শরিফ,কামরুল গং হল চোরাচারাই পার্টি,তবে এব্যাপারে খোঁজ নিয়ে দেখব। সুনামগঞ্জ ২৮ব্যাটালিয়নের বিজিবি অধিনায়ক নাসিরউদ্দিন বলেন,কয়লা চোরাচালান বন্ধের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *